Logo

যে রাশির মেয়েদের মধ্যে জন্মগতভাবে যোগ্য স্ত্রীর গুণ থাকে!

 

যে রাশির মেয়েদের মধ্যে জন্মগতভাবে যোগ্য স্ত্রীর গুণ থাকে!

যে রাশির মেয়েদের মধ্যে জন্মগতভাবে যোগ্য স্ত্রীর গুণ থাকে!

সাধারণ একজন মেয়ে থেকে প্রেমিকা হওয়ার সময় যেমন প্রতিটি মহিলার মধ্যেই বেশ কিছু পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়, তেমনই প্রেমিকা থেকে স্ত্রী হওয়ার জন্যও বেশ কিছু যোগ্যতা অর্জন করতে হয় একজন মেয়েকে। আর এই পরিবর্তনের মধ্যে দিয়েই এক নারী জীবনে আসে বেশ কিছু ভিন্ন স্বাদের অধ্যায়। তবে জ্যোতিষশাস্ত্র বলছে, কিছু মহিলার মধ্যে জন্মগতভাবে গুণ থাকে যোগ্য স্ত্রী হওয়ার:

কর্কট রাশি : একজন যোগ্য স্ত্রী হিসাবে কর্কট রাশির মাহিলারা সবচেয়ে আগে। এরা এমনিতেই রোম্যান্টিকে ভরপুর। নিজের সমস্ত স্বার্থকে সরিয়ে রেখে এরা প্রেমিকের ভালোর জন্য ঝাঁ’পিয়ে পড়ে। তাই স্ত্রী হিসাবে এঁদের পেলে বহু ব্যক্তিই সুখী হন। বৃশ্চিক রাশি : বৃশ্চিক রাশির মহিলারা বেশ দা’পুটে হন। কিন্তু মনের দিক থেকে এরা খুবই সহজ সরল। প্রেমিকা হিসাবে এরা যতটা আকর্ষণীয় স্ত্রী হিসাবে এদের আকর্ষণের মাত্রা আরও বেড়ে যায়। পাশাপাশি সম্পর্ক ধরে রাখতে এদের জুরি মেলা ভার।

তুলা রাশি : তুলা রাশির মহিলারা যত শান্ত হন ততটাই কামনীয় হয়ে থাকেন। ‘সুশীলা’ স্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা এদের জন্মগত। তার সঙ্গে এদের সম্মোহনে আকর্ষণ করার ক্ষ’মতাও ব্যা’পক। এরা নিজের সঙ্গীকে সুখে রাখতে বেশ ভালোবাসে। কন্যা রাশি : কন্যা রাশির জাতিকারা প্রেমিকা হিসাবে সেরা। তারাও নিজের স্বার্থের কথা না ভেবে সঙ্গীর জন্য সমস্ত কিছু করতে পারেন। রোম্যান্টিক স্ত্রীয়ের উপযুক্ত উদাহরণ তারা।

বৃষ রাশি : বৃষ রাশির জাতিকারা নিজের স্বামীর সুখের জন্য যাবতীয় ঝুঁ’কি নিতে পারেন। এমনই দাবি জ্যোতিষ শাস্ত্রের। সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার সমস্ত ক্ষমতা এদের মধ্যে থাকে। মানসিক শক্তির দিক দিয়েও তারা যথেষ্ট কঠোর। তবে যতই কঠোর হোক না কেন, তারা মমতাময়ী হয়ে থাকেন। বৃষ রাশির জাতিকা হয়ে থাকেন বিচক্ষণ এবং ধৈর্য শালী


আপনার মতামত লিখুন :

Comments are closed.