Logo

আড়াইহাজারে হিন্দু মুসলিম প্রেম কাহিনী নিয়ে মেম্বারের তেলেসমাতি কারবার

আড়াইহাজারে হিন্দু মুসলিম প্রেম কাহিনী নিয়ে মেম্বারের তেলেসমাতি কারবার

ভ্রাম্মমান সংবাদদাতা( আড়ইহাজার থেকে ফিরে):-  নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে হিন্দু ছেলে ও মুসলমান মেয়ের মধ্যে প্রেম কাহিনী নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। এ বিষয়ে মেয়ের বাবার অভিযোগের প্রেক্ষিতে স্থানীয় মেম্বার আঃ গফুর ও তার দল বল ছেলে পক্ষ থেকে মোটা অংকের টাকা খেয়ে বিষয়টিকে কোন প্রকার বিচার ছাড়াই ডিস মিস করে দিয়েছেন এমন অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, উপজেলার উচিৎপুরা ইউনিয়নের উচিৎপুরা জেলে পাড়ার বিমলের ছেলে উচিৎপুরা বাজারের সেলুন দোকানের মালিক রাজু শীল (২৬) ও একই ইউনিয়নের বিজয়নগর বেপারীপাড়া গ্রামের মোস্তফার মেয়ে ইতি আক্তার (১৯) এর মধ্যে দীর্ঘ দিন যাবত প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। বিষয়টি টের পেয়ে ইতির বাবা মোস্তফা ইতিকে নারান্দী গ্রামের ইয়াকুবের ছেলে শাহ আলমের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে দেন। কিছু দিন পর ইতির স্বামী শাহআলম ইতির মোবাইল ফেনে ইতি ও রাজুর মধ্যেকার প্রেমের সম্পর্কের নানা প্রমাণাদী দেখতে পেয়ে ইতিকে তার বাপের বাড়ি পাঠিয়ে দেয় । রাজুর কারণে ইতির সংসার ভাঙ্গার অভিযোগের উপর ইতির বাবা গত সপ্তাহে স্থানীয় ভাবে এক বৈঠক বসান। বৈঠকে স্থানীয় গফুর মেম্বার, ফরিদ মাতাব্বর এবং তাদের সহযোগিরা রাজুর পিতা বিমলের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা খেয়ে রাজুকে ২-১ টা চড় থাপ্পর দিয়ে ছেড়ে দেন।ইতির গরীব বাবার তাদের উপর দিয়ে কথা বলার বা প্রতিবাদ করার মত ক্ষমতা ছিল না। ইতির বাবা মোস্তফা সাংবাদিকদের কাছে কেঁদে কেঁদে বলেন, এত টাকা খরচ করে মেয়ের বিয়ে দিলাম, সেই ঘরটি রাজুর কারণে ভাঙ্গা গেল। এখন আমি সমাজে মুখ দেখাব কি করে।

এ ব্যাপারে জিজ্ঞেস করা হলে রাজুর বাবা বিমল সব ঘটনা অকপটে স্বীকার করেন। অভিযুক্ত গফুর ওমম্বারের সঙ্গে মুঠো ফোনে আলাপ হলে তিনিও ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন, তবে রাজুর বাবার কাছ থেকে টাকা নেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *