Logo
শিরোনাম
আন্তর্জাতিক শিশু শান্তি পুরস্কারপ্রাপ্ত কিশোর সাদাতকে নড়াইল জেলা প্রশাসনের সংবর্ধনা নড়াইলের নড়াগাতীতে জামাই-শ্বশুরের ওপর নৃশংস হামলার প্রতিবাদে ও দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানববন্ধন ফরিদগঞ্জে সম্ভাব্য মেয়র প্রার্থী ইসমাইল হোসেনের মটরসাইকেল শোভাযাত্রা ও কর্মী সমাবেশ ফরিদগঞ্জে কমিউনিটি ক্লিনিক পরিচালনায় স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিদের প্রশিক্ষন না’গঞ্জে পাসপোর্ট অফিসের কর্মচারী দুদকের জালে ফতুল্লায় ১৬ জুয়াড়ি গ্রেফতার নাসিককে স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী দিলো জাপানের নারাতো সিটি জগদীশ চন্দ্র বসুর মৃত্যুবার্ষিকীতে আলোচনা সভা রূপগঞ্জে পুকুরে বিষ দিয়ে মাছ নিধন রূপগঞ্জে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ

বাজারে লেবুর দাম হয়েছে আকাশ ছোঁয়া, আদা থেকে শুরুকরে বেশীরভাগ নিত্যপন্যের দাম ঊর্ধ্বমুখী

 

বাজারে লেবুর দাম হয়েছে আকাশ ছোঁয়া, আদা থেকে শুরুকরে বেশীরভাগ নিত্যপন্যের দাম ঊর্ধ্বমুখী

 

সাবরিনা বন্যা(দৈনিক দেশের আলো):    এই করোনাকালে এবারেও গরমের দিনে পড়েছে রোজা, তাই ইফতারে চাই লেবুর শরবত। কিন্তু বাজারে লেবুর গায়ে হাতই দেয়া যাচ্ছে না। দাম হয়েছে আকাশ ছোঁয়া।

আজ শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) প্রতি হালি লেবুর দাম উঠেছে ৬০-৭০ টাকা। ক্রেতারা বলছেন গত কয়েক বছরে এত দাম দিয়ে তাদের লেবু কিনতে হয়নি।কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা গেছে, আজ বাজারে দাম বেড়ে প্রতি কেজি পেঁয়াজ ৫৫ থেকে ৬০ টাকা, আদা ২৯০ টাকা, রসুন ১২০ থেকে ১৬০ টাকা, তেল ১১০ থেকে ১১৫ টাকা, ছোলা ৮৫ থেকে ১০০ টাকা, বেসন ৮০-১২০ টাকা, চিনি ৭০ টাকা, মসুর ডাল ১৩০-১৪০ টাকা, আটা ৩০ টাকা, ময়দা ৪০ টাকা, মুড়ি ৬৫ টাকা, ডিম ৩০ টাকা, খেজুর মানভেদে ২০০ থেকে ৪০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।এক সপ্তাহ আগে বাজারে এই ছোলা ছিল ৮০ থেকে ৯০ টাকা, মসুরের ডাল দেশি ১১০-১২০ টাকা ও পেঁয়াজ ৫০-৫৫ টাকা, বেসন ৭০-৮০ টাকা।

এদিকে, আগের মতোই ঊর্ধ্বমুখী রয়েছে চালের দাম। বর্তমান বাজারে প্রতিকেজি মিনিকেট ৬০, পাইজাম ৪৮, নাজিরসাই ৬৫ টাকা, সুগন্ধি চাল ১০০ থেকে ১১০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হতে দেখা গেছে।

তাছাড়া, রমজানকে সামনে রেখে কিছু কিছু সবজির দাম বাড়নো হয়েছে। বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে বেগুন ও শসা। বর্তমানে সবজি বাজারে প্রতি কেজি বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৬০-৮০ টাকা, আলু ২৫-৩০টাকা, শসা ৫০-৬০ টাকা, টমেটো ৫০-৬০ টাকা, কাঁচামরিচ ৬০ টাকা, চিচিঙ্গা ৪৫-৫০ টাকা, করল্লা ৫০-৭০ টাকা ,পটল ৬০-৭০, টাকা, ঢ্যাঁড়স ৪০-৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। তাছাড়া প্রতি পিচ লাউ ৪০-৬০ টাকা এবং মিষ্টি কুমড়া ৩০-৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।এদিকে মাংসের বাজারে দেখা যায়, গত সপ্তাহের মতো স্থিতিশীল রয়েছে মাংসের দাম। বর্তমান বাজারে প্রতি কেজি গরুর মাংস ৫৮০ থেকে ৬০০ টাকা, খাসির মাংস ৮৫০ থেকে ৯০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

তবে তবে রমজানকে সামনে রেখে মুরগির মাংসের দাম কিছুটা বেড়েছে বয়লার মুরগির প্রতি কেজি ১২৫ থেকে ১৩০ টাকা, কক মুরগি ১৭০ টাকা,পাকিস্তানি মুরগি ২২০টাকা, দেশি মুরগি ৪৫০ থেকে ৫০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।এদিকে, মাছের বাজার ঘুরে দেখা যায়, বাজারে প্রায় সব ধরনের মাছ রয়েছে। মাছের দাম বাড়তি রাখা হচ্ছে এমন অভিযোগ করেছেন ক্রেতারা। বাজারে প্রতি কেজি রুই মাছ ২২০-৩০০ টাকা, পাবদা মাছ ৫০০ টাকা, শিং মাছ ৪০০ টাকা, তেলাপিয়া মাছ ১৮০ টাকা, ছোট মাছ ৪৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হতে দেখা গেছে


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *