Logo

আড়াইহাজারে ‘মানবতার ফেরিওয়ালা’ কেন্দ্রীয় মহিলা দল নেত্রী পারভীন

আড়াইহাজারে ‘মানবতার ফেরিওয়ালা’ কেন্দ্রীয় মহিলা দল নেত্রী পারভীন

বিশেষ প্রতিনিধি:
আড়াইহাজার উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় এ পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে কেন্দ্রীয় মহিলা দলের সাংগঠনিক সম্পাদক পারভীন আক্তার ৯ হাজার পরিবারের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন বলে আজ মঙ্গলবার দুপুরে জানানো হয়েছে। বিএনপির চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে করোনা পরিস্থিতির শুরুতে তিনি ৩০ দিনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছিলেন। তিনি নিজের উদ্যোগে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন কাকডাকা ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন। এতে অনেকেই তাকে ‘মানবতার ফেরিওয়ালা’ বলেও আখ্যায়িত করছেন। প্রথম ১৫ দিন সামাজিক দূরুত্ব বজায় রেখে দলীয় নেতাকর্মীসহ বিভিন্ন লোকজনের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন। পরবর্তী ১৫ দিন তিনি মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন। পারভীন আক্তার বলেন, আমি রাজনীতি করছি নিজের জন্য নয়, জনগণের কল্যাণে। দেশের মানুষ আজ মহাসংকটের মধ্যে দিয়ে অতিবাহিত করছেন। করোনাভাইরাসের মহামারিতে বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বের ২লাখের বেশি মানুষ মৃত্যু বরণ করেছেন। ৩০ লাখেরও বেশী মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। দেশের সর্বত্র খাদ্য ও চিকিৎসা সেবার মহাসংকট। সরকারের চিকিৎসা ব্যবস্থা পুরাপুরি ব্যর্থ। নমুনা পরীক্ষার প্রর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেই। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ পাচ্ছে সরকারের জনপ্রতিনিধিরা জনগণের ত্রাণ আত্মসাৎ করছে। এর ফলে ক্ষুধার্ত মানুষ খাদ্যের ট্রাক লুট করছেন। দেশের অর্ধেকের বেশী মানুষ বিএনপির সমর্থক। তাদের মতামত না নিয়ে সরকার চিকিৎসা ও ত্রাণ বিতরণে লেজে গোবরে করে ফেলেছে। কারণ মিডনাইটে সীল মেরে সরকার ক্ষমতায় এসেছে। জনগণের ভোটে নির্বাচিত হলে দেশে এ অরাজকতা সৃষ্টি হতো না। পারভীন আক্তার আরো বলেন, করোনার ভয়াবহতার কারণে কিছু দিনের জন্য খাদ্যসামগ্রী বিতরণ স্থগিত করা হয়েছে। জনগণের প্রয়োজনে ঈদুল ফিতরের আগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ আবারও শুরু করা হবে। আশাকরি বিগত সময়ের মতো বভিষ্যতেও সাংবাদিক ও প্রশাসন আমাদের এই মানবিক কার্যক্রমে সার্বিক সহযোগিতা দিয়ে যাবেন। দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বিগত সময়ে পারভীন এক বার ভাইস চেয়ারম্যান। দুইবার আড়াইহাজার পৌরসভায় মেয়র পদে নির্বাচনে অংশ নেন। তিনি জনগণের কাছে একজন ও প্রিয় নেত্রী। ক্ষমতাসীন দলের দ্বারা ভোটকেন্দ্র দখল না হলে তিনিই হতেন বৃহত্তর ঢাকার প্রথম নারী মেয়র। পারভীন আক্তারের রাজনৈতিক জীবনে তিনি প্রথম উপজেলা মহিলা দলের সভানেত্রী। পরে নারায়ণগঞ্জ জেলা মহিলা দলের যুগ্ম আহ্বায়ক। বর্তমানে তিনি মহিলা দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক (ঢাকা বিভাগ)-এ দায়িত্ব পালন করছেন। তার স্বামী আনোয়ার হোসেন অনু জেলা বিএনপির সাবেক অর্থবিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক বিআরডিবির চেয়ারম্যান। একই সঙ্গে তিনি সমাজসেবক।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *