Logo

বগুড়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় পা হারালেন পিতা ও কন্যা

বগুড়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় পা হারালেন পিতা ও কন্যা

এনামুল হক রাঙ্গা বগুড়া : বগুড়ায় এক সড়ক দূর্ঘটনায় পিতা ও কন্যা পা হারিয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকাল পৌণে ৯টার দিকে জেলার শাজাহানপুর উপজেলার আড়িয়াবাজার এলাকায় ওই দূর্ঘটনা ঘটে। আহতরা মোটর সাইকেল আরোহী ছিলেন। হতভাগ্যরা হলেন- বগুড়ার শেরপুর উপজেলার ঘোষপাড়ার নবির উদ্দিনের ছেলে চা দোকানি লিটন মণ্ডল এবং তার ৭ বছরের কন্যা লামিয়া জাহান। মোটর সাইকেলে থাকা লিটন মণ্ডলের ছেলে আসিফের (১৪) পা রক্ষা পেলেও গুরুতর জখম হয়েছে। বগুড়ায় হাইওয়ে পুলিশের কুন্দারহাট ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর সাইফুল ইসলাম জানান, লিটন মণ্ডলের ছেলে ও মেয়ে তাদের নানার বাড়ি মোকামতলায় বেড়াতে গিয়েছিল। তাদেরকে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য লিটন মণ্ডল মোটর সাইকেল নিয়ে শ্বশুড় বাড়ি যান এবং পরে বৃহস্পতিবার ছেলে-মেয়েকে নিয়ে শেরপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হন। সকাল পৌণে ৯টার দিকে শাজাহানপুর উপজেলার আড়িয়াবাজার এলাকায় পৌঁছুলে বিপরীতমুখী একটি ট্রাক (নারায়ণগঞ্জ-ড-১১-০০৬৯) ওই মোটরসাইকেলে ধাক্কা দেয়। তখন তারা তিনজন ছিটকে পড়ে যায়। এতে ৭ বছরের শিশু লামিয়া জাহানের ডান পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। তার বাবা লিটন মণ্ডল ও ভাই আফিসেরও ডান পা থেঁতলে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। শজিমেক হাসপাতালের অর্থোপেডিক বিভাগের প্রধান প্রফেসর ডা. রেজাউল আলম জুয়েল জানান, শিশু লামিয়ার ডান পা আগেই বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিল। আর অপারেশনের মাধ্যমে তার বাবা লিটন মণ্ডলের ডান পা কেটে ফেলতে হয়েছে। তবে অপর সন্তান আসিফের ডান পা থেঁতলে গেলেও কাটার প্রয়োজন পড়েনি। বগুড়ার হাইওয়ে পুলিশ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ্ জানান, চালকসহ ট্রাকটি আটক করা হয়েছে। ওই ঘটনায় মামলা দায়ের করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

fourteen + thirteen =


Theme Created By Raytahost.Com