Logo
HEL [tta_listen_btn]

দুর্নীতিতে জড়িত কাউকে ছাড় দিবো না: স্বাস্থ্য সচিব

দুর্নীতিতে জড়িত কাউকে ছাড় দিবো না: স্বাস্থ্য সচিব

 

নিজস্ব সংবাদদাতা:
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা সচিব আব্দুল মান্নান বলেছেন, করোনার প্রথম দিক থেকেই নারায়ণগঞ্জ হটস্পটে পরিণত হয়েছিল। নারায়ণগঞ্জ কিন্তু এখন একটি পর্যায়ে আসছে। আমার আসার মূল উদ্দেশ্য স্বাস্থ্য সেবা ও করোনা নিয়ে যারা এখানে কাজ করছে তাদের সবার সাথে দেখা করা, তাদের সমস্যাগুলো শোনা, অক্সিজেন সিলিন্ডার পর্যাপ্ত আছে কিনা, ইকুয়েপমেন্টের কোন ঘাটতি আছে কিনা মোটামোটি সবাকিছু মিলিয়েই তাদের মুখ থেকে সবকিছু শোনা। তিনি বলেন, ফ্রন্টলাইনের যে যোদ্ধারা আছে যদি তাদের সাথে আমরা যোগাযোগ না রাখি তাহলে কাজ করার যে মনোবল সেটাও তাদের থাকে না। তাই আমি মনে করেছি সিভিল সার্জনকে ঢাকায় ডেকে সবকিছু শোনা আর নিজে এখানে এসে সব দেখা ও শোনার মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। আমার আসার কারণে তারা যাতে একটু মনোবল ফিরে পায় সেটাও একটি উদ্দেশ্য। সোমবার (১৩ জুলাই) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন। স্বাস্থ্য খাতে দুর্নীতি নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রতিদিনই আমরা কোন না কোন উদ্যোগ নিচ্ছি। রিজেন্ট বা জেকেজি যে কেউ হোক না কেন কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। দূর্নীতির সাথে জড়িত কাউকে আমরা ছাড় দিবো না। আমি এক মিনিটও দূর্নীতির সাথে থাকতে চাই না। আমরা চাই না কোন দূর্নীতি হোক। আমরা সবসময় সত্যের সাথে থাকতে চাই। ল্যাব এইডসহ বিভিন্ন যেসব প্রতিষ্ঠান করোনা পরীক্ষার জন্য অনুমোদন পেয়েছে তারা কি শুধু ঢাকাতেই পেয়েছে নাকি সারাদেশে পেয়েছে এমন এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এগুলো ডিজে অফিসের কাজ। এগুলো মন্ত্রণালয় করে না। মহাপরিচালকের অফিস থেকে লাইন ডিরেক্টররা আছে কে কোন কাজটা দেখবে। তারা নিশ্চয় তাদের কাছ থেকে পারমিশন নিয়েছে। বড় বড় হাসপাতালগুলো যেমন ইউনাটেড বা ল্যাবএইড এদের সারাদেশের বিভিন্ন জায়গায় শাখা থাকে। তো তারা যখন অনুমতি নিবে এক জায়গার জন্য নিবে না। সারাদেশের জন্য নিবে না। আমরা মনে হয় এরকম কিছু একটা হয়েছে। আর যদি এরকমটা না হয় সেটাও আমরা খোঁজ নিবো। আর তারা যদি করোনা পরীক্ষায় টাকা বেশি নেয় সেই বিষয়টাও আমি সিভিল সার্জনকে বলে দিচ্ছি যাতে করে তিনি সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেন। তিনি আরও বলেন, আমি শুধু বলতে চাই অপরাধ যারাই করবে সেটা কোন হাসপাতাল বা কে বা কি নাম তা দেখার বিষয় না। একদম সিলগালা করে দিবো। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব উম্মে সালমা তানজিয়া, জেলা প্রশাসক জসিম উদ্দিন, ৩শ শয্যা হাসপাতালের তত্ত¡াবধায়ক ডা. গৌতম রায়, জেলা সিভিল
সার্জন ডা. মোহাম্মদ ইমতিয়াজ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. জাহিদুল ইসলাম, আড়াইহাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সায়মা আফরোজ ইভা প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost.Com