Logo
HEL [tta_listen_btn]

বানভাসীদের পর্যাপ্ত ত্রাণ ও ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি বাসদের

বানভাসীদের পর্যাপ্ত ত্রাণ ও ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি বাসদের

নিজস্ব সংবাদদাতা:
বানভাসী মানুষদের পর্যাপ্ত সরকারি ত্রাণ, ক্ষতিপূরণ এবং পুনর্বাসনের দাবি জানিয়ে বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় তারা স্বাস্থ্যখাতে ব্যাপক দুর্নীতি ও অনিয়মের সাথে যুক্ত সকল রাঘব-বোয়ালদের শাস্তি এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদত্যাগ ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল এবং বিচার বহিভর্‚ত হত্যাকান্ড বন্ধের দাবি জানায়। গতকাল রোববার (৯ আগস্ট) বিকেলে চাষাঢ়া শহীদ মিনারে এ সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন বাসদের জেলা সমন্বয়ক নিখিল দাস। রি-রোলিং শ্রমিক নেতা এসএম কাদেরের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট জেলা সভাপতি আবু নাইম খান বিপ্লব, সমাজতান্ত্রিক গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট জেলা সভাপতি সেলিম মাহমুদ। নিখিল দাস বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন চালু হয়েছে। বুদ্ধিজীবী থেকে শুরু করে সবাই এই আইনের বিরোধিতা করেছে। এটি জঘন্য কালো আইন। এই আইনে কোনো পরিষ্কার সংজ্ঞা দেওয়া হয় নাই। এই আইনের সাহায্যে সরকার যে কাউকে সন্দেহের বশে কারারুদ্ধ করতে পারবে। এই আইন জনগণকে দমনপীড়ন করা ও জনগণের কন্ঠরোধ করার জন্য আনা হয়েছে। যে ৫৭ ধারা ছিল তার আইন এই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ঢুকিয়ে দিয়েছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র, শিক্ষক থেকে শুরু করে সাংবাদিকরা এই কালো আইনের দ্বারা নির্যাতনের শিকার হয়েছে। আমাদের সরকার ক্ষমতার বাইরে গণতন্ত্রী, ক্ষমতায় এলে স্বৈরতন্ত্রী। বিচার বহিভর্‚ত হত্যাকান্ড পবিত্র সংবিধানের আইন লংঘন করে। ওসি প্রদীপ সৃষ্টি হয়েছে আমাদের অনিয়ম ও গণবিরোধী আইনের জন্য। ১৮৬১ সালে ব্রিটিশদের গড়া অ্যাক্ট এখনো চলছে। বাংলাদেশের পুলিশ আমাদের বন্ধু নয়। তারা এই আইন ভেঙ্গে নতুন আইন গড়তে চাই না, তারা চাই দমনপীড়ন। আবু নাইম খান বিপ্লব বলেন, করোনাকালীন সময়ে দেশে স্বাস্থ্যব্যবস্থার যে অনিয়ম তা স্পষ্ট করে দেখিয়ে দিয়েছে। সরকার করোনা শনাক্তের যে হিসেব দিয়েছে তার চেয়ে বেশি আক্রান্ত ছিল। শনাক্ত কম দেখানোর জন্য তারা করোনা টেস্টে ফি বসিয়েছে। যেখানে ২০ থেকে ৩০ হাজার শনাক্ত হয়েছে সেখানে তারা দেখাচ্ছে ৮ থেকে ১০ হাজার। আমাদের দেশে সংক্রমণ কমছে না বরং বাড়ছে। এই ব্যর্থতার দায় কেবল মাত্র দুইজন সচিব বদল বোঝাতে চেয়েছে তারা সিরিয়াস। অথচ এদের মূলকেন্দ্রে যিনি তিনি হলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost.Com