Logo
HEL [tta_listen_btn]

যশোরে ভবদহ জলাবদ্ধতা নিরসনে দাবীতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন 

যশোরে ভবদহ জলাবদ্ধতা নিরসনে দাবীতে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন 

নিলয় ধর,যশোর সংবাদদাতা :
যশোরে ভবদহ পানি নিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটি রবিবার ৯ আগষ্ট  দুপুর ১২ টায় মাননীয় প্রধান মন্ত্রী নিকট ভবদহ অঞ্চলের ৮ শত ৮ কোটি টাকার গণ স্বার্থ বিরোধী প্রকল্প বাতিল করে ২০১৭ সালের গৃহিত বিল কপালিয়া সহ অপরাপর বিলে জোয়ারাধার প্রকল্প বাস্তবায়নের দাবীতে স্মারক লিপি প্রদান করে। স্মারক লিপি প্রদানের পূর্বে ভবদহ জনপদের মানুষ মিছিল সহকারে জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরে যায় তারা। এই সময়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরে স্বাস্থ্য বিধি মেনে পানি নিষ্কাসন সংগ্রাম কমিটির আহবায়কের সভাপতিত্বে এক বিক্ষোভ মানব বন্ধ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ রবিবারে দুপুর ১২ টা থেকে ১ টা পর্যন্ত মানববন্ধন চলে। বিক্ষোভে বক্তব্য রাখেন রণজিৎ বাওয়ালি, প্রধান উপদেষ্টা- ইকবাল কবির জাহিদ, উপদেষ্টা এ্যাঃ আবুল হোসেন, হাচিনুর রহমান, জিল্লুর রহমান ভিটু, তসলিমউর রহমান, যুগ্ম আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা গাজী আব্দুল হামিদ, সদস্য সচীব চৈতন্য পাল, সদস্য নিজাম উদ্দিন, কানু বিশ্বাশ, শিব পদ প্রমুখ। নেতৃবৃন্দরা বলেছেন ৫২ বিল, ২০০ শত গ্রাম ও ১০ লক্ষ মানুষের বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ করে জলাভূমি করার চক্রান্ত বুকের রক্ত দিয়ে হলেও প্রতিহত করা হবে। লুটপাটের জন্য ৮ শত ৮ কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহনের চক্রান্ত চলছে। এত বড় প্রকল্প গ্রহনে ভবদহ জনপদের মানুষের কোন মতামত নেওয়া হয়নি।তাই এই প্রকল্প গণ বিরোধী। এর আগে জনপদের মানুষ জোয়ারাধার( টি আর এম) এর পক্ষে মত দিয়েছিল। জনগনের মতামতের ভিত্তিতে ২০১৭ সালে জোয়ারাধার (টিআরএম) প্রকল্প গৃহিত হয়েছিলো। কাদের স্বার্থে, চক্রান্তে জোয়ারাধার প্রকল্প বাতিল করে ৮ শত ৮ কোটি টাকার লুটপাট ভাগবাটরার, ১০ লক্ষ মানুষকে ঐ জনপদ থেকে উচ্ছেদের প্রকল্প গ্রহনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে জনগণরা জানতে চায়। ভারি বর্ষা হলে ৩ উপজেলার ভবদহের ২০০ গ্রাম নয় যশোরের সদরের অংশ, শহরের অংশ, এমন কি সেনানিবাসের অংশ বিশেষ প্লাবিত হবার আশংকা রয়েছে। তাই সকল ষড়যন্ত্র চাক্রান্ত বাদ দিয়েছে, জলাভূমি করে পানির দরে জমি ক্রয়ের বাসনা বাদ দিয়ে ৮ শত ৮ কোটি টাকার গণ বিরোধী প্রকল্পের ভাবনা বাদ দিয়ে জোয়ারাধার প্রকল্প বাস্তবায়ন, আমডাঙ্গার খাল সংস্কার ও সম্প্রসারণ করা হক। বিক্ষোভ মানব বন্ধন শেষে রনজিৎ বাওয়ালি, গাজী আব্দুল হামিদের নেতৃত্বে এক প্রতিনিদল মাননীয় প্রাধান মন্ত্রীর নিকট স্মারক জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রদান করে। স্মারক লিপি গ্রহন করেছে, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ( সার্বিক) জনাব রফিকুল ইসলাম।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost.Com