Logo

না’গঞ্জ প্রেসক্লাবের নতুন কমিটির  সাথে এসপি’র মতবিনিময়

না’গঞ্জ প্রেসক্লাবের নতুন কমিটির  সাথে এসপি’র মতবিনিময়

নিজস্ব সংবাদদাতা:
নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে মতবিনিময় করেছেন জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম। এ সময় জেলার বিভিন্ন সমস্যার কথা এসপির কাছে তুলে ধরেন সাংবাদিক নেতারা। বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার পর পারস্পরিক সহযোগিতার মাধ্যমে কাজ করার অঙ্গিকার ব্যক্ত করেন এসপি জায়েদুল আলম। সোমবার (১১ জানুয়ারি) বিকেলে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম নতুন কমিটির নেতৃবৃন্দকে ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানান। মতবিনিময় সভায় সকলে পারস্পরিক সহযোগিতা ও অংশগ্রহণের ভিত্তিতে একসাথে কাজ করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ জেলা পুলিশের বিগত এক বছরের কার্যক্রমের প্রশংসা করেন। সভায় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সদ্য সাবেক সভাপতি এড. মাহবুবুর রহমান মাসুম, সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান ভূঁইয়া শামীম, নতুন কার্যকরী কমিটির সভাপতি খন্দকার শাহ আলম, সহসভাপতি রফিকুল ইসলাম জীবন, সাধারণ সম্পাদক শরীফ উদ্দিন সবুজ, যুগ্ম সম্পাদক আহসান সাদিক, কোষাধ্যক্ষ মুজিবুল হক পলাশ, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক আনিসুর রহমান জুয়েল, কার্যকরী সদস্য হালিম আজাদ, আরিফ আলম দিপু, মাহফুজুর রহমান, বিল্লাল হোসেন রবিন, লুৎফর রহমান কাকন। আরও উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোস্তাফিজুর রহমান, পরিদর্শক (ট্রাফিক) কামরুল ইসলামসহ জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকতাবৃন্দ।
মতবিনিময় সভায় সাংবাদিক নেতাদের আলোচনায় শহরের ফুটপাতে হকার সমস্যা, যানজট, অবৈধ স্ট্যান্ড ও পার্কিংয়ের বিষয়গুলো উঠে আসে। শহরের ফুটপাতগুলোতে হকার সমস্যা প্রকট হচ্ছে উল্লেখ করে এ বিষয়ে দ্রত ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানান সাংবাদিক নেতারা। মৌমিতা ও অনাবিল নামে দু’টি পরিবহনের বাসের যাত্রীদের স্ট্যান্ড ছাড়াই চাষাঢ়ার শহীদ মিনারের সামনে সড়কের উপর উঠা-নামা করার কথা উল্লেখ করা হলে উপস্থিত ট্রাফিকের পরিদর্শককে আগামী সাতদিনের মধ্যে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন এসপি জায়েদুল আলম। এছাড়া শহরের চাঁদমারী, খানপুর হাসপাতাল এলাকা, চাষাঢ়া ও নারায়ণগঞ্জ রেলস্টেশন এলাকায় মাদক কেনা-বেচা করার প্রসঙ্গ উঠলে এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করার আশ্বাস দেন এসপি। নামধারী সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও প্রস্তাব তোলেন সাংবাদিক নেতারা। যানবাহনে প্রেস কিংবা সাংবাদিক লেখা থাকলে ওই বাহন আরও বেশি করে তল্লাশির পরামর্শ দেন তারা। বিগত পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ প্রায় সময়ই শহরের বিভিন্ন সড়কে পায়ে হেঁটে টহল দিতেন। এই বিষয়টি উল্লেখ বর্তমান এসপিকেও এই কার্যক্রম পরিচালনার প্রস্তাবনা দেওয়া হয়। তথ্য পাওয়ার ব্যাপারে থানা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সহযোগিতা কামনা করেন সাংবাদিক নেতারা। বিশেষ করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার কর্মকর্তারা গণমাধ্যমকর্মীদের ফোন রিসিভ করেন না বলেও উল্লেখ করা হয় মতবিনিময় সভায়। তথ্য বিভ্রান্তি এড়ানোর জন্য অবাধ তথ্য পাওয়ার স্বাধীনতার প্রতি জোর দেন সাংবাদিক নেতারা। তারা পারস্পরিক সহযোগিতা কামনা করেন জেলা পুলিশ সুপারের কাছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *