Logo

আমি আরো কিছুদিন জনসেবা করতে চাই -এমপি সেলিম ওসমান

আমি আরো কিছুদিন জনসেবা করতে চাই -এমপি সেলিম ওসমান

নিজস্ব সংবাদদাতা :
নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমান বলেছেন, আমার এখনো অনেক কাজ বাকী আছে। সে কাজগুলো শেষ করার জন্য আমি আরো কিছুদিন আপনাদের সাথে থাকতে চাই। প্রয়াত জননেতা একেএম সামসুজ্জোহা’র ৩৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মিলাদ ও দোয়া মাহ্ফিলে তিনি একথা বলেন। তিনি বলেন, আমি আমার মায়ের নির্দেশে আপনাদের সাথে একত্রিত হয়েছি। আমি বলবো আজকে নারায়ণগঞ্জে সবচেয়ে বড় বিদ্যালয় এই যে সামসুজ্জোহা স্কুলটা। আমি আপনাদের কাছে আজ আমার বাবার জন্য দোয়া চাইছি, আপনারা ওনার জন্য দোয়া করবেন। আমরা আরো দোয়া করবো আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্য যাতে, আমাদের দেশটা আরো এগিয়ে যেতে পারে। আমরা দোয়া করবো আমাদের জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্য। এ কে এম সামসুজ্জোহা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, স্বাধীনতা সংগ্রামের অন্যতম সংগঠক, ভাষা সৈনিক ও স্বাধীনতা পদকপ্রাপ্ত (মরনোত্তর) প্রয়াত সাংসদ ছিলেন। বন্দরের মুছাপুরে অবস্থিত সামসুজ্জোহা এমবি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ে মিলাদ ও দোয়া মাহ্ফিলের আয়োজন করে পরিবারের সদস্যরা। এ সময় সেলিম ওসমান বলেন, আমার বাবা আমাকে নির্দেশ করেছেন, আমার মা আমাকে নির্দেশ করেছেন, আমার ভাই আমাকে নির্দেশ করেছেন যে যা করবো সবার জন্য করবো। আমি চাইলে পারতাম আমার বাবার নামে একটি মেডিকেল কলেজ স্থাপন করতে। এই যে এই স্কুলটা আমার বাবার একটি স্মৃতি হিসেবে আপনাদের কাছে রয়ে গেলো। আমার মায়ের স্মৃতিও এখানে আমার ভাইয়ের স্মৃতিও আমি এখানে রেখেছি। বন্দরে আরো একটি স্কুলে নাসিম ভাইয়ের নামে একটি ভবন তৈরি করা হচ্ছে।সেলিম ওসমান আরও বলেন, আমি আপনাদের দোয়া চাই। আমাদের যা যা কাজ করার কথা ছিলো, তা যাতে করতে পারি। কেননা করোনা ভাইরাসের কারনে আমরা অনেক পিছিয়ে গেছি। অনেক কাজ ছিলো, অনেক অবহেলা হয়ে গেছে। এখন আবার কাজ শুরু হবে। আমি আরো কিছু দিন আপনাদের সাথে থাকতে চাই, যাতে আপনাদের জন্য আমি কাজ করতে পারি। আজ এখানে দোয়া করা হবে শুধু আমার বাবার জন্য নয়, আমার নেত্রী শেখ হাসিনার জন্য আপনাদের এখানে উপস্থিত সকলের জন্য আমি চাই আজ দোয়া করা হোক। প্রথমে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়, পরে কোরআন তেলাওয়াত, এরপর এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন- বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এমএ রশিদ, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, জাতীয় পার্টির নারায়ণগঞ্জ জেলার আহ্বায়ক আকরাম আলী শাহীন, উপজেলা জাতীয় পার্টির সানাউল্লাহ সানু, বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিন আহম্মেদ, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন প্রধান, ধামঘর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাসুদ আহমেদ, কাউন্সিলর আফজাল হোসেন ও দুলাল প্রধান প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *