Logo
HEL [tta_listen_btn]

মধ্যরাতে কিশোর পরিবহন চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্য মদনপুরে র‌্যাবের হানা, চাঁদাবাজির টাকাসহ ৬ চাঁদাবাজ গ্রেফতার

মধ্যরাতে কিশোর পরিবহন চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্য মদনপুরে র‌্যাবের হানা, চাঁদাবাজির টাকাসহ ৬ চাঁদাবাজ গ্রেফতার

বন্দর সংবাদদাতা:
পাড়া মহল্লায় সচল থাকা কিশোর গ্যাং এর সদস্যরা এবার মহাসড়কে পরিবহন চাঁদাবাজ হিসেবে নাম লিখিয়েছে। সর্বাত্মক লকডাউনের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে মধ্যরাতের ফাঁকা রাস্তায় যানবাহন থেকে চাঁদা আদায় করছে কিশোর গ্যাং এর হিং¯্র সদস্যরা। বন্দরে পন্যবাহী ট্রাক ও যাত্রীবাহী লেগুনা থেকে চাঁদা উত্তেলনের সময় চাঁদাবাজির নগদ ১ হাজার ৩শ’ টাকাসহ ৬ কিশোর পরিবহন চাঁদাবাজকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে র‌্যাব-১১ সিপিএসসি আদমজীনগর। গত (২৪ এপ্রিল) শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় বন্দর উপজেলার ঢাকা টু চট্রগ্রাম মহাসড়কের মদনপুরস্থ রাফি পেট্রোলপাম্পের সামনে থেকে চাঁদা আদায়ের সময় ওই কিশোর চাঁদাবাজদের হাতেনাতে আটক করা হয়। আটককৃত চাঁদাবাজরা হলো বন্দর কুমারপাড়া এলাকার মোতালেব মিয়ার বাড়ী ভাড়াটিয়া ওই এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে হৃদয় হোসেন (১৭) বন্দর কাঠপট্টি এলাকার শাহজামাল মিয়ার ভাড়াটিয়া শামীম মিয়ার ছেলে ফাহিম (১৫) বন্দর জামাইপাড়া এলাকার কেটু মিয়ার ভাড়াটিয়া জাকির হোসেনের ছেলে মেরাজ হোসেন (১৫) বন্দর রাজবাড়ী মিন্টু মিয়ার ভাড়াটিয়া খোরশেদ গাজী মিয়ার ছেলে সোহাগ গাজী (১৬) বন্দর সেলসারদী এলাকার আকাশ মিযার ছেলে শরিফ (১৪) ও বন্দর কুমারপাড়া এলাকার লিটন প্রধানের ছেলে আকাশ প্রধান (১৪)। এ ব্যাপারে র‌্যাব-১১ ডিএডি পুলিশ পরিদর্শক কামাল হোসেন মোল্লা বাদী হয়ে আটককৃতদের বিরুদ্ধে বন্দর থানায় চাঁদাবাজি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- ২২(৩)২১ তাং- ২৩-৪-২১ইং। ধারা- ৩৮৫/৩৮৬/৩৪ পেনাল কোড ১৮৬০। র‌্যাব-১১ রাতেই আটককৃত চাঁদাবাজদের বন্দর থানায় সোপর্দ করে মামলা দায়ের করলে পুলিশ আটককৃতদের শনিবার দুপুরে যথাযথ নিয়মে আদালতে প্রেরণ করেছে। জানা গেছে, র‌্যাব-১১ সিপিএসসি আদমজীনগরের ডিএডি পুলিশ পরিদর্শক কামাল হোসেন মোল্লাসহ সঙ্গীয় র্ফোস সোনারগাঁ থানাধীন কাঁচপুর এলাকায় টহল ডিউটি করাকালে বন্দরের মদনপুর এলাকায় একটি সংঘবদ্ধ চাঁদাবাজ গ্রæপ বিভিন্ন পরিবহন থেকে চাঁদা আদায় করছে বলে খবর পায়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উল্লেখিত র‌্যাব-১১ একটি টিম বন্দর উপজেলার ঢাকা টু চট্রগ্রাম মহাসড়কের মদনপুরস্থ রাফি পেট্রোল পাম্পের সামনে থেকে চাঁদা আদায়ের সময় চাঁদাবাজি টাকাসহ উল্লেখিত কিশোর ৬ চাঁদাবাজদের হাতে নাতে আটক করতে সক্ষম হয়। এ ব্যাপারে মামলার বাদী র‌্যাব-১১ ডিএডি পুলিশ পরিদর্শক কামাল হোসেন মোল্লা গণমাধ্যমকে জানান, আটককৃতরা দীর্ঘদিন ধরে ঢাকা টু চট্রগ্রাম মহাসড়কের বিভিন্নস্থানে পন্যবাহী ট্রাক ও লেগুনার চালক এবং হেলপারদের নানা ভাবে ভয় দেখিয়ে চাঁদা আদায় করে আসছে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost.Com