Logo

ডিবি পরিচয়ে মোটরসাইকেল ছিনতাই

ডিবি পরিচয়ে মোটরসাইকেল ছিনতাই

সিদ্ধিরগঞ্জ সংবাদদাতা:
সিদ্ধিরগঞ্জে ডিবি পুলিশের পরিচয়ে মোটরসাইকেল ছিনতাইয়ের ঘটনায় সংঘবদ্ধ ছিনতাইকারি চক্রের চার সদস্যকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলো- সিদ্ধিরগঞ্জ থানার চৌধুরী বাড়ী ক্যানালপাড় মুনজুর বাড়ীর ভাড়াটিয়া মোঃ দুলাল ভূইয়ার ছেলে মোঃ সজীব ভূইয়া ওরফে বাবু (২৭), একই এলাকার মোঃ আক্কাস আলীর ছেলে মোঃ রোমান (২২), গোদনাইল ক্যানালপাড় এলাকার মোঃ ইয়াসিন মিয়ার ছেলে মোঃ জাহিদ (২৪) ও গোদনাইল বাগপাড়া এলাকার মৃত নুর উদ্দিনের ছেলে আলামিন (৪০)। গতকাল ৪ মে রাতে সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার গোদনাইল এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ছিনতাইকৃত সুজুকি জিকসার মডেলের একটি আধুনিক মোটর সাইকেল ও একটি মোবাইল ফোন। বুধবার (৫ মে) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিবি) জাহেদ পারভেজ চৌধুরী এক প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য গণমাধ্যমকর্মীকে জানান। তিনি জানান, গত ২ মে রাত আনুমানিক এগারোটার সময় সিদ্ধিরগঞ্জের জালকুঁড়ি এলাকার বাসিন্দা সামছুল মোটর সাইকেলে চলে বাড়ি যাচ্ছিলেন। যাত্রাপথে গোদনাইল দুই নম্বর ঢাকেশ্বরী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় সজীব ভূঁইয়ার নেতৃত্বে একদল ছিনতাইকারি নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে তার মোটর সাইকেল থামায়। এসময় তল্লাশির কথা বলে কৌশলে তারা সামছুলকে মোটর সাইকেল থেকে নামিয়ে জিম্মি করে নেয়। পরে তাকে মারধর করে মোটর সাইকেলসহ দুইটি মোবাইল ফোন ও নগদ একুশ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ ঘটনার পর ভুক্তভোগি সামছুল ওই রাতেই সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় বাদি হয়ে মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ মঙ্গলবার রাতে তালিকাভুক্ত ছিনতাইকারি সজীবকে গ্রেফতার করলে সে ছিনতাইয়ের ঘটনাসহ মোটার সাইকেলটি একটি গ্যারেজে বিক্রি করে দেয়ার কথা স্বীকার করে। পরে তার দেয়া তথ্যমতে ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে ছিনতাই করা মোটর সাইকেল উদ্ধারসহ গ্যারেজ মালিক ও সজীবের আরো দুই সহযোগিকে গ্রেফতার করে। জেলা ডিবি পুলিশের এই কর্মকর্তা আরো জানান, গ্রেফতারকৃত সজীব ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে ছিনতাইয়ের অভিযোগে একাধিক মামলা রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ওই এলাকায় ইতিপূর্বে যেসব মোটর সাইকেল ছিনতাই করা হয়েছে তার সাথে সজীবের চক্রটি জড়িত থাকতে পারে। তাই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সজীবসহ গ্রেফতারকৃত আসামিদের সাতদিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *