Logo
HEL [tta_listen_btn]

কবর রাজনীতি ……………………………… আইভীপ্রদত্ত বিবৃতি নিয়ে নানা কথা

কবর রাজনীতি ……………………………… আইভীপ্রদত্ত বিবৃতি নিয়ে নানা কথা

নিজস্ব সংবাদদাতা:
‘শ্মশানের মাটি কবরে ফেলা হয়নি’ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন কৃতক এমন অপরিপক্ক বিবৃতি কে বানিয়ে দিলো? বেসরকারি টিভি চ্যানেল ‘সময় টিভিতে প্রচারিত ভিডিতে দেখা যায় স্পষ্ট মাসদাইর কবরস্থান মুয়াজ্জিন বক্তব্য দিয়েছে, ‘ঠিকাদার মাটি ভেতরে নিয়ে আসে। সেখান থেকে এমপি সাবগো কবরে মাটি চলে গেছে’। এরপর ঠিকাদার মামুন মিয়া স্পষ্ট করে বলছে, ‘মাটিগুলো বাইরে ছিলো। সিটি করপোরেশন ভেতরে নিয়ে এসে কবরে দিতে বেেলছ। এটা আমার ভুল হইছে। আমি এগুলা সরায় দিতাছি’। ইমাম বলেছে, ‘শ্মশানের মাটি কবরে ফেলা ঠিক না’। এমন অকাট্য প্রমাণ থাকার পরও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন বা সিটি করপোরেশন মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীকে কে লিখে দিলো এমন ভুল ও মিথ্যায় ভরপুর বিবৃতি। এরকম বিবৃতি না দিয়ে প্রকৃতভাবে শ্মশানের মাটি কি কবরে ফেলা হয়েছে কিনা, তা নিয়ে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে সত্য মিথ্যা নির্ণয়ের সুযোগ নেয়া যেতো। কিন্তু হঠাৎ করেই শ্মশানের মাটি কবরে ফেলা হয়নি এ নিয়ে বিবৃতি দেয়ার পেছনের পাওয়া গেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। বিগত বহু বছর তদন্ত করলে দেখা যাবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন বা আইভী কর্তৃক কখনো কোন বিষয়ে লিখিত বিবৃতি দেয়ার প্রবণতা তার নেই বললেই চলে। এ ঘটনায় শামীম ওসমান একটি মন্তব্য করেছিল, ‘এ ন্যাক্কারজনক কাজ মূলত ইবলিশ ওরফে শয়তানের’। বিবৃতি লিখে দিলো কারা, এমন বিষয়ে আইভী বলয়ের নিজস্ব লোকদের মধ্যেও চলছে ব্যাপক সমালোচনা। অনেকেই মনে করছেন, আইভীকে কুপরামর্শ দিয়ে ডুবানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। যে বা যারা এমন হটকারী কাজ করিয়েছেন, তারা অন্তত আইভীর মঙ্গল চান না। কিংবা এই শহরে শান্তি বজায় থাকুক, তা চান না। আইভী শিবিরে থাকা বেশ কয়েকজন নেতা জানান, কবরস্থান নিয়ে শামীম ওসমানের সামনে মুয়াজ্জিন ও সিটি করপোরেশেন ঠিকাদার স্বীকার করে নিয়েছিল যে শ্মশানের মাটি কবরে ফেলা হয়েছে। এ নিয়ে শামীম ওসমান আইভীকে দোষারোপও করেনি। তিনি শুধু চেয়েছেন ৪৮ ঘন্টার মধ্যে মাটি সরিয়ে দেয়া হোক। শ্মশানের মাটি কবরে ফেলা হয়নি প্রথম দিন মুয়াজ্জিন বা ঠিকাদার রাখঢাক না রেখে শামীম ওসমানকে জানালো। শামীম ওসমান তো নিজে বলেনি, শ্মশানের মাটি কবরে ফেলা হয়েছে। ঠিকাদার মামুন মিয়া ও মুয়াজ্জিন জাকারিয়া নিজে স্বীকার করার পরেই শামীম ওসমান দাবি জানিয়েছে। সেখানে সিটি করপোরেশন সঠিক তদন্ত কমিটি গঠন না করে কেন এবং কাদের ইন্ধনে একটি ভুলেভরা বিবৃতি দিতে গেলো। ওই সূত্রটি আরো জানায়, বিবৃতি দেয়ার মত অভ্যাস সিটি করপোরেশন বা আইভীর নেই। নতুন কয়েকজন বুদ্ধিদাতাদের অতিউৎসাহের ভুলেই এমন কান্ড। এখন মূলত তারাই ‘ওরফে শয়তান’র নাটকের অভিনেতা হয়ে কাজ করছেন। তারা আক্ষেপ করে জানান, শামীম ওসমান যে ওরফে শয়তানকে খুঁজছেন তারাই মূলত সেই ওরফে শয়তান।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost.Com