Logo
HEL [tta_listen_btn]

ওয়েবসাইটে উল্লেখ রয়েছে ৩১টি সেবার কথা সিটি করপোরেশন থেকে কী পাচ্ছে নগরবাসী?

ওয়েবসাইটে উল্লেখ রয়েছে ৩১টি সেবার কথা সিটি করপোরেশন থেকে কী পাচ্ছে নগরবাসী?

নিজস্ব সংবাদদাতা:
সিটি করপোরেশন মহানগরে স্বায়ত্ত¡শাসন ব্যবস্থার একক। একটা বাচ্চা যখন জন্ম নেয় তখন তার বার্থ সার্টিফিকেট থেকে শুরু করে তার জীবন শেষে মৃত্যুর সার্টিফিকেটও সিটি কর্পোরেশন ইস্যু করে থাকে। এর মাঝে তার ব্যবসা বাণিজ্য, চাকরি-বাক্রি থেকে শুরু করে প্রতিটি স্তরে স্তরে সিটি কর্পোরেশনের নানা কাজ রয়েছে। নাগরিক সুবিধার তালিকা এলে এক বাক্যে বলে শেষ করা সম্ভব নয়, তবে অনেকেই জানেন না সিটি করপোরেশন কি কি সেবা জনগণকে দিয়ে থাকে। নাগরিক সুবিধার যে বিষয়গুলো নিয়ে মানুষ দুর্ভোগ পোহায় সেগুলোই আলোচনায় আসে। বাকিগুলো মানুষের আলোচনায় আসে না। সিটি কর্পোরেশনে আইনে সব মিলিয়ে ২৮ ধরণের নাগরিক সেবার কথা উল্লেখ রয়েছে আর নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ওয়েবসাইটে বিভিন্ন শাখার দায়িত্ব ও সেবা প্রদান প্রতিশ্রæতি উল্লেখ রয়েছে ৩১টি সেবার কথা। কিন্তু নগরবাসীকে সঠিক ভাবে জানানো হয়নি কখনো, জানানোর উদ্যোগও নেয়নি সংশ্লিষ্টরা। কেন জানানো হয় না। প্রিয় পাঠক, আপনি কয়টি নাগরিক সুবিধা পাচ্ছেন? আমাদের লিখে জানান। আজ আপনাদের জন্য সিটি করপোরেশনের কাছ থেকে নগরবাসী কি কি সেবা পাবে তুলে ধরা হলো- নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ওয়েবসাইটে বিভিন্ন শাখায় যেসব দায়িত্বের কথা জানানো হয়েছে তা হলো-
(১) নগরীর দরিদ্র ও হত দরিদ্র মানুষের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নে বস্তির ভৌত অবকাঠামো উন্নয়ন, ক্ষ্রদ্র ঋণ প্রদান, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা, প্রশিক্ষণ। (২) বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, দুগ্ধদায়ী মায়ের সহায়তা ভাতা প্রদান।
(৩) নগরীর শিশুদের শিক্ষা কার্যক্রমে সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি করার লক্ষে সরকারের সহযোগিতায় বিভিন্ন স্কুলে মিড-ডে মিল (দুপুরের খাবার) কার্যক্রম চলমান রাখা। (৪) নগরীর অবকাঠামো উন্নয়ন ও পরিকল্পনা প্রণয়ন করা
(৫) সড়ক এবং ড্রেন নির্মাণ করা (৬)পার্ক নির্মাণ করা (৭)খেলার মাঠ (৮)জলাশয় রক্ষনাবেক্ষণসহ উন্নয়ন কাজ করা। (৯) নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মালিকানাধীন সকল সম্পত্তি রক্ষনাবেক্ষণ। (১০) নগরী পরিচ্ছন্ন রাখা ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা করা। (১১) নগরীর জনস্বাস্থ্য নিশ্চিত করা (১২) মাতৃস্বাস্থ্যের উন্নয়নের জন্য কাজ করা (১৩)নিরাপদ মাতৃত্বসেবা নিশ্চিত করা (১৪)শিশুদের টিকা প্রদান করা।
এছাড়াও সেবা প্রদান প্রতিশ্রæতিতে উল্লেখ আছে- (১৫) শহীদ মিনার বরাদ্দ প্রদান, (১৬) তালাক শুনানী সভার নকল, (১৭)বিচারের আদেশের নকল, (১৮) তথ্য সরবরাহ, (১৯) পরিবেশগত অনাপত্তি পত্র/অবস্থানগত ছাড়পত্র, (২০) বিজ্ঞাপন/সাইনবোর্ড/বিলবোর্ড স্থাপনের অনুমতিপত্র, (২১) নূতন হোল্ডিং নম্বর প্রদান, (২২) হোল্ডিং নাম পরিবর্তন, (২৩) হোল্ডিং পৃথকীকরণ, (২৪) হোল্ডিং একত্রীকরণ, (২৫) রোড কাটিং এর অনুমতি,
(২৬) রোড রোলার ভাড়া, (২৭) ঠিকাদারী লাইসেন্স প্রদান, (২৮)জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন এবং সনদ প্রদান,
(২৯) ট্রেড লাইসেন্স প্রদান নতুন/নবায়ন, (৩০)রিক্সা, ভ্যান, ঠেলাগাড়ী লাইসেন্স নবায়ন।
এদিকে, সিটি কর্পোরেশন আইন অনুযায়ী, সিটি কর্পোরেশনের কাজের পরিধির মধ্যে যেসব কাজের উল্লেখ রয়েছে সেগুলোর বিভিন্ন ভাগ ও উপ-ভাগ রয়েছে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল-
# জনস্বাস্থ্য
(০১) কর্পোরেশন নগরীর স্বাস্থ্য ব্যবস্থার জন্য দায়ী থাকবে এ সম্পর্কিত কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করার থাকলে সেটিও গ্রহণ করতে হবে। (০২) অস্বাস্থ্যকর ইমারতের ব্যবস্থাপনায় পদক্ষেপ গ্রহণ। (০৩) আবর্জনা অপসারণ।
(০৪) আবর্জনা সংগ্রহ এবং ব্যবস্থাপনা। (০৫) পুরুষ ও নারীদের জন্য আলাদা ও পর্যাপ্ত পায়খানা স্থাপন ও ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করা।
# জন্ম, মৃত্যু এবং বিয়ে রেজিস্ট্রি
(০৬) কর্পোরেশনের সীমানার মধ্যে যে সব জন্ম, মৃত্যু ও বিয়ে হয় সেগুলো বিধান অনুসরণ করে রেজিস্ট্রি এবং এর পরিসংখ্যান ও উপাত্ত সংগ্রহ করা।
# সংক্রামক ব্যাধি
(০৭) নগরীতে সংক্রামক ব্যাধি প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা, এর জন্য প্রয়োজনে হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা ও রক্ষণাবেক্ষণের ব্যবস্থা করা। (০৮) সিটি এলাকায় সংস্থাটির নিবন্ধন ব্যতিত বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক, ডায়াগনোষ্টিক সেন্টার, প্যারামেডিক্যাল ইনস্টিটিউট পরিচালনা করতে পারবে না।
# চিকিৎসা, সাহায্য ও স্বাস্থ্যশিক্ষা
(০৯) স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও মাতৃসদন প্রতিষ্ঠা, (১০) নারী-শিশু-কিশোরদের জন্য কল্যাণকেন্দ্র স্থাপন ও পরিচালনা,
(১১) ধাত্রী প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা (১২) কর্পোরেশন স্বাস্থ্যমূলক শিক্ষাসহ জনস্বাস্থ্যের উন্নতির বিধান কল্পে প্রয়োজনীয় যে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। (১৩) কর্পোরেশন নগরবাসীর চিকিৎসার সুবিধার জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক হাসপাতাল ও ডিসপেনসারি প্রতিষ্ঠা ও রক্ষণাবেক্ষণ করবে। (১৪) প্রাথমিক চিকিৎসা কেন্দ্র স্থাপন ও পরিচালনা, (১৫) ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসা সাহায্য ইউনিট স্থাপন ও পরিচালনা, (১৬) চিকিৎসা বিদ্যার উন্নয়ন,
(১৭) স্কুল ছাত্র-ছাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাও সিটি কর্পোরেশনের কাজের আওতাধীন।
# শিক্ষা
(১৮) করপোরেশনে নিবন্ধন ব্যতীত বেসরকারি বা ব্যক্তিগত ভাবে টিউটোরিয়াল স্কুল বা কোচিং সেন্টার চালু করা যাবে না (১৯) এবং টিউটোরিয়াল বা কোচিং ফিস ধার্য করে দিবে সিটি করপোরেশন
#পানি সরবরাহ ও পানি নিষ্কাশন প্রণালী
(২০) পানি সরবরাহ (২১) পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা (২২) স্নান ও ধৌত করার স্থান (২৩) ধোপী ঘাট এবং ধোপা
(২১) সরকারি জলাধার সংরক্ষণ (২৪) কর্পোরেশন নগরের অধিবাসী এবং নগরীতে আগন্তুকদের আরাম ও সুবিধার জন্য প্রয়োজনীয় রাস্তা এবং অন্যান্য যোগাযোগের ব্যবস্থা ও রক্ষণাবেক্ষণ করবে।
এগুলো ছাড়াও সিটি কর্পোরেশনে আইনে সব মিলিয়ে এই কর্পোরেশনের মোট ২৮ ধরণের কাজের উল্লেখ করা হয়েছে, যেগুলো নাগরিকরা তাদের সুবিধার জন্য পেতে পারেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost.Com