Logo

ধাওয়া খেয়ে মন্তুর পলায়ন

ধাওয়া খেয়ে মন্তুর পলায়ন

নিজস্ব সংবাদদাতা
নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের নবঘোষিত আহবায়ক কমিটিকে প্রতিরোধের অভিযানের ঘোষণা করেছিলেন পদবঞ্চিত নির্যাতিত বিদ্রোহীরা। এর ধারাবাহিকতায় নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের সুপার ফাইভ যেখানেই অনুষ্ঠান সেখানেই প্রতিহত লক্ষ্যে শনিবার (২০ নভেম্বর) সকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাব, আমলাপাড়া ও খানপুর হাসপাতাল এলাকায় মহড়া দিয়েছে বিদ্রোহী নেতা-কর্মীরা। এ সময় আমলাপাড়া মহানগর যুবদলের আহবায়ক মমতাজ উদ্দিন মন্তুকে ধাওয়া করলেন বিদ্রোহীরা। পালিয়ে যান মন্তুর সাথে আসা সমর্থকরা। যে পর্যন্ত কেন্দ্রীয় কমিটি বির্তর্কিত নবঘোষিত নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলকে কমিটিকে সংশোধন না করে সে পর্যন্ত প্রতিরোধ অভিযান চলবে বলে ঘোষণা দেন বিদ্রোহীদের নেতা মাজহারুল ইসলাম জোসেফ ও রানা মুজিব। ২০ নভেম্বর শনিবার সকাল সাড়ে ৯টায় থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের বিদ্রোহীদের নেতা মাজহারুল ইসলাম জোসেফের নেতৃত্বে শহর-সিদ্ধিরগঞ্জ ও বন্দরের শতাধিক নেতা-কর্মী নিয়ে শহরে মহড়া দেন। এ সময় মহড়ায় উপস্থিত ছিলেন, মহানগর যুবদলের সাবেক সহ-সভাপতি রানা মুজিব, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক রশিদুর রহমান রুশো, সাবেক দপ্তর সম্পাদক শওকত খন্দকার, রুহুল আমিন, আল আমিন খান, মাহবুব জুলহাস, সাইদ, বাদশা, সেলিম, শেখ অপু, ওসমান গণি, শহিদ, মুসা, এ আর মনির, আল মামুন, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবদল থেকে জুয়েল প্রধান, ইকবাল হোসেন, আকতারুজ্জামান মৃধা, রোকনউদ্দিন, কাজী নূর আলম, দুলাল মিয়া, মাঈণুদ্দিন, রুবেল, সোহেল মাহমুদ, বোরহান ঢালী, মানিক মন্ডল, হানিফ, শামীম, শরিফুল হাসান রোকন, বন্দর থানা যুবদলের সভাপতি আমির হোসনে, নূর আলম খন্দকার, কাজী সোহাগ, সেলিম খন্দকার, ইলিয়াছ, মহসিন, শাহিন, হুমায়ূণ, সোহেল, শামসু ও রহমান প্রমুখ। যুবদলের বিদ্রোহীদের নেতা মাজহারুল ইসলাম জোসেফ জানান, আমরা জানতে পারি সকাল সাড়ে ৯টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠান করবে বির্তর্কিত মহানগর আহবায়ক কমিটি। এমন সংবাদে উক্ত সময়ে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবে সামনে আমার নেতৃত্বে শতাধিক নেতা-কর্মীরা মিছিল নিয়ে তাদের প্রতিরোধে অভিযান যায়। পরে প্রেসক্লাবে সামনে কাউকে দেখতে পায়নি। পরে প্রেসক্লাবের পিছনে মহানগর বিএনপি অনুষ্ঠানে আগত নেতা-কর্মীদের দেখতে পায়। পরে সকাল ১০টায় মহানগর বিএনপির গণঅনশনে আমরা উপস্থিত সকল নেতৃবৃন্দরা একাত্মতা প্রকাশ করি। পরে জানতে পারি ১০টায় আমলপাড়াস্থ নারায়ণগঞ্জ আইন কলেজের সামনে বির্তর্কিত যুবদলের অনুষ্ঠান করবে। এমন সংবাদে জাকির সুপার মার্কেটের গলি হয়ে আমলাপাড়া প্রবেশ কালে চৌরাস্তা বির্তকিত আহবায়ক মমতাজ উদ্দিন মন্তুু সহ ১০ থেকে ১২ জন রিক্সা যোগে অতিক্রমকালে মিছিলকারীদের ভয়ে দৌড় দেয়। এ সময় মিছিলকারীরা মন্তুকে ধাওয়া করলেওসহ কয়েকজন একটি ভবনে ভিতরে ঢুকে যায়। পরে ভবনে ভিতরে একটি অপ্রীতিকর ঘটনা রোধে মিছিলকারীদের সরিয়ে নেয়া হয়। আধঘন্টা ভবনটি সামনে মিছিলকারীদের অবস্থানে পর নারায়ণগঞ্জ আইন কলেজ হয়ে খানপুর হাসপাতাল মোড়ে এলাকায় আমরা অবস্থান নেয়। কিন্তু কোথাও তাদের না পেয়ে আমরা শহরে বির্তর্কিত কমিটি বাতিলের দাবিতে মিছিল করি। অপরদিকে বিদ্রোহীদের নেতা রানা মুজিব জানান, মহানগর যুবদল কমিটি সুন্দরভাবে পরিচালিত হয়ে ছিল। কেন্দ্রীয় কমিটিকে ভুল বুঝিয়ে কতিপয় কয়েক নেতা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করায়। কিন্তু দীর্ঘদিন পর আহবায়ক কমিটি দেয়া হয়, যাদের নেতা বানানো হয়েছে তাদের কোন গ্রহণযোগ্য এখনো হয়নি রাজপথে রাজনীতি করার জন্য। বির্তর্কিত কমিটি এখন ছাত্রদলের নেতা কর্মীদের নিয়ে শো-ডাউন করছে, আহবায়ক যুগ্ম আহবায়ক ও সদস্য সচিবদের কোন কর্মী নেই।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *