Logo

নিউইয়র্কে গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের জন্মদিন পালন

নিউইয়র্কে গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের জন্মদিন পালন

নিউইয়র্ক সংবাদদাতা
অনেক কালজয়ী গানের রচিয়তা ও সুরকার গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের জন্মদিন পালিত হয়েছে নিউইয়র্কে। বাংলাদেশের মাটির সন্তান বরেণ্য এই গীতিকারের জন্মদিন পালনের মধ্য দিয়ে আয়োজকরা পাবনায় তার পৈত্রিক ভিটা সংরক্ষণের দাবি জানিয়েছেন। বর্তমানে গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের বাড়িটি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হিসাবে ব্যবহৃত হচ্ছে। এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের নামকরণ করার দাবি জানানো হয়। এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল গৌরীপ্রসন্ন মজুমদার স্মৃতি সংসদ, নিউইয়র্ক। গত ৫ ডিসেম্বর রাতে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে নবান্ন রেষ্টুরেন্টে এই গীতিকারের জন্ম উৎসব পালিত হয়। মঞ্চে প্রদ্বীপ প্রজ্জ্বলন করে স্মরণ করা হয় গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের জন্মদিন। এরপর ছিল কথা আর গানের সম্মিলন। গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের সঙ্গে ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময়কালে কীভাবে পরিচয় এবং গান নিয়ে কাজ করেছিলেন এর স্মৃতিচারণ করেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কণ্ঠশিল্পী (কণ্ঠযোদ্ধা) রথীন্দ্রনাথ রায়। তিনি একটি সঙ্গীতও পরিবেশন করেন। এ ছাড়া স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী শহীদ হাসান গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের লেখা কয়েকটি গান পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের আয়োজক গোপাল স্যানাল। এ ছাড়া শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সংগঠনের আহবায়ক মুহাম্মদ ফজলুর রহমান, প্রবীণ সাংবাদিক মনজুর আহমদ, কণ্ঠশিল্পী মোত্তালিব বিশ্বাস, সংস্কৃতি কর্মী মিথুন আহমেদ ও কমিউনিটি এক্টভিষ্ট শুভ রায়। অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন শাহ গ্রæপের প্রতিষ্ঠাতা ও বাংলা চ্যানেল-এর সিইও শাহ জে. চৌধুরী। গানের বাণী যখন মানুষের মনের কথার প্রতিফলন ঘটে, জীবনের আখ্যান বিধৃত হয়, তখন গান সুর আর কণ্ঠের লালিত্যে কালকে জয় করতে পারে। গৌরীপ্রসন্ন মজুমদারের লেখা গান আকাশ ভরা নক্ষত্রের মত। ১৯৪৭ খ্রীষ্টাব্দ থেকে তাঁর মৃত্যুর আগ পর্যন্ত (১৯৮৬ খ্রীষ্টাব্দ) এই অতুলনীয় প্রতিভাবান গীতিকার গীত রচনায় সাফল্যের শীর্ষে পৌঁছুতে পেরেছিলেন। মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়তে লড়তেও তিনি হাসপাতালে বিছানায় শয্যাশায়ী হয়ে গান লিখে গেছেন। তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের প্রবল সমর্থক ছিলেন। মুক্তিযোদ্ধাদের প্রেরণা সৃষ্টিকারী গানও লিখেছেন, যা বাংলাদেশিদের কাছে ‘অমরত্ব’ লাভ করে। এ সব কথা উঠে এসেছে স্মরণ সভায় বক্তাদের ভাষণে। অনুষ্ঠানে আরো সঙ্গীত পরিবেশন করেন মোত্তালিব বিশ্বাস, চন্দন চৌধুরী, শাহানা ভট্টাচার্য, শাহ মাহবুব ও মরিয়ম মারিয়া। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেন স্বাধীন মজুমমদার। অনুষ্ঠানে নিউইয়র্ক বাংলাদেশি কমিউনিটির সংস্কৃতমনা, সঙ্গীতানুরাগী ও সুধীজন উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

three × five =


Theme Created By Raytahost.Com