Logo

চিরচেনা চেহারায় ফিরছে না’গঞ্জ

চিরচেনা চেহারায় ফিরছে না’গঞ্জ

দেশের আলো রিপোর্ট
ঈদের লম্বা ছুটি শেষে অফিস-আদালত, স্কুল-কলেজসহ সবকিছুই খুলে গেছে। নারীর টানে গ্রামে ফেরা মানুষগুলো আবার রুটি-রুজির তাগিদে ফিরে এসেছেন শিল্পনগরী নারায়ণগঞ্জে। তাই মানুষের পাশাপাশি প্রধান সড়কগুলোতে বেড়েছে পরিবহনের সংখ্যা। কোথাও কোথাও যানজটেও পড়তে হচ্ছে নগরবাসীকে। ধীরে ধীরে চিরচেনা রূপে ফিরতে শুরু করেছে নারায়ণগঞ্জ শহর। ঈদুল ফিতর উপলক্ষে এ বছর দেশের সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবীরা ২৯ এপ্রিল থেকে ৪ মে পর্যন্ত টানা ৬ দিনের ছুটি পান। ঈদের ৪ দিনের ছুটের সঙ্গে ঈদের আগে সাপ্তাহিক ছুটি (শুক্রবার ও শনিবার) মিলে লম্বা ছুটি মেলে। এছাড়াও মে দিবস উপলক্ষে ১ মে ছুটি ছিল। ঈদের আগের শুক্রবার ছিল ২৯ এপ্রিল। পরদিন (শনিবার) ৩০ এপ্রিল। ১ মে রোববার শ্রমিক দিবসের সরকারি ছুটি। একইসঙ্গে এদিন ঈদের ছুটি শুরু হয়। এরপর সোম, মঙ্গল ও বুধবার (২, ৩ ও ৪ মে) ঈদের সরকারি ছুটি ছিল। এক্ষেত্রে কেউ কেউ ৫ মে (বৃহস্পতিবার) বাড়তি ছুটি নেন। এতে ৬ ও ৭ মে (শুক্র ও শনিবার) মিলিয়ে টানা ৯ দিন ছুটি কাটান। এমন লম্বা ছুটি পাওয়ায় ঈদের প্রায় সপ্তাহখানেক আগে থেকেই শহর ছাড়তে শুরু করে মানুষ। এতে গ্রামে ফেরা মানুষের ঢল নামে দূরপাল্লার পরিবহনগুলোতে। আবার ছুটি শেষে শুক্র, শনি ও রোববার ফিরতি মানুষের ঢল নামে। নারীর টানে শহর ছাড়া মানুষগুলো আবার ফিরে আসায় কর্মব্যস্ত এ শহরের রাস্তায় যানজটের সেই চিত্র আবার অনেকটাই ফিরে এসেছে। সরেজমিন, বুধবার (১১ মে) সকালে শহরের চাষাঢ়া এলাকায় গাড়ির বেশ চাপ দেখা যায়। এতে রাস্তাগুলোতে কিছুটা যানজটও সৃষ্টি হয়। অথচ বিগত রোববারও (৮ মে) রাস্তাগুলো বেশ ফাঁকা ছিল। বন্দর টার্মিনাল ঘাট, টার্মিনাল বাস কাউন্টারগুলোতে যানবাহনের বেশি চাপ দেখা যায় এবং কোথাও কোথাও যানজটের দৃশ্য চোখে পড়ে। বন্দর টার্মিনাল ঘাটে কথা হয় মোবারক মিয়ার সাথে। তিনি বলেন, ঈদের ছুটে শেষে শুক্রবার নারায়ণগঞ্জ ফিরেছি। রোববার থেকে অফিস করছি। রোববার ও সোমবার রাস্তা বেশ ফাঁকা ছিল। মঙ্গলবার থেকে রাস্তায় গাড়ির চাপ বেড়েছে। যে কারণে রাস্তায় যানজট সৃষ্টি হতে শুরু হয়ে গেছে। মঙ্গলবার থেকে আজ যানজট বেশি মনে হয়েছে। তবে স্বাভাবিক সময়ের মতো যানজট এখনো শুরু হয়নি। গ্রাম থেকে পরিবারের বাকি সদস্যরা ফিরছে তাদের রিসিভ করার জন্য এখানে এসেছি। টার্মিনাল বাস কাউন্টারে উৎসব পরিবহনের চেকার বাবুল দাসের সাথে কথা হয়। তিনি বলেন, রাস্তায় গাড়ির চাপ বেড়েছে। ফলে রাস্তায় যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। রোববার পর্যন্ত মোটামুটি রাস্তা ফাঁকা ছিল। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বন্ধন পরিবহনের এক চালক জানান, ঈদের ছুটে শেষ হয়ে গেছে। গ্রাম থেকে মানুষ ফিরে এসেছেন। রাস্তায় মানুষের চলাচল যেমন বেড়েছে, তেমনি বেড়েছে গাড়ির সংখ্যা। ফলে কিছু কিছু জায়গায় যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। তবে অন্য সময়ের মতো যে যানজট তা এখনো শুরু হয়নি। আগামী সপ্তাহ থেকে নারায়ণগঞ্জ আবার সম্পূর্ণ রূপে আগের চেহারায় ফিরে আসবে বলে মনে করছেন তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

13 + 9 =


Theme Created By Raytahost.Com