Logo
HEL [tta_listen_btn]

তদন্তের নির্দেশ  জেলা পরিষদে নিয়োগ নিয়ে দুর্নীতি

তদন্তের নির্দেশ  জেলা পরিষদে নিয়োগ নিয়ে দুর্নীতি

নিজস্ব সংবাদদাতা
২০২১ সালে একজন সার্ভেয়ার ও দু’জন নি¤œমান সহকারি নিয়োগ দিয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ। অথচ নিয়োগের এই প্রক্রিয়ায় অনিয়ম, দুর্নীতি হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনার পর স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে স¤প্রতি বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের পরিচালককে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে। জেলা পরিষদের কর্মচারী নিয়োগের জন্য যাচাই-বাছাই কমিটি করে দেয় সরকার। সেই কমিটির আহŸায়ক সংশ্লিষ্ট জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা। এছাড়া সদস্য হয়েছে জেলা পরিষদের সচিব, জেলা সিভিল সার্জন, স্থানীয় সরকারের উপ-পরিচালক, জেলা হিসাবরক্ষণ অফিসার ও জেলা পরিষদের সহকারি প্রকৌশলী। ২০১৯ সালে ২৬ আগস্ট এ নি¤œমান সহকারি-কাম-মুদ্রাক্ষরিক/কম্পিউটার অপারেটর পদে ২ জন ও সার্ভেয়ার পদে একজনের নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ। ২০২১ সালে সার্ভেয়ার পদে নিয়োগ পান সোহেল রানা। ২০২২ সালের ৩১ মে দুর্নীতি দমন কমিশন থেকে স্থানীয় সরকার বিভাগের জেলা পরিষদ শাখাকে স্মারক দিয়ে জানানো হয়, সার্ভেয়ার ও নি¤œমান সহকারি পদে দুর্নীতির মাধ্যমে নিয়োগ করা হয়েছে। নিয়োগপ্রাপ্ত সার্ভেয়ার সোহেল রানা জানান, নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর পরীক্ষা দেই। তখন চাকরি হয় রাকিব নামের এক ব্যক্তির। তিনি কিছুদিন চাকরিও করেন। পরে চাকরি ছেড়ে দেওয়ায় চিঠির মাধ্যমে আমাকে নিয়োগ দেওয়া হয়। মূল ঘটনা বলতে পারবেন অফিস কর্তৃপক্ষ ও কমিশনার কার্যালয়। এ ঘটনায় ৩ জুলাই দুর্নীতির মাধ্যমে নিয়োগের আনীত অভিযোগটি স্থানীয় সরকার বিভাগীয় কমিশনের কার্যালয়ের পরিচালককে সরেজমিন তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন উপ-সচিব মোহাম্মদ তানভীর আজম সিদ্দিকী। নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (উপ-সচিব) এম.এম. মাহমুদুর রহমান জানান, সম্ভবত মন্ত্রণালয়ে কেউ একজন অভিযোগ করেছেন। সেখান থেকে বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের পরিচালককে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয় কিন্তু এখনও তদন্ত কমিটি আসেনি। আমরাও চিঠিপত্র পাইনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost.Com