Logo

বিনম্র শ্রদ্ধায় জাতীয় শোক দিবস পালিত

 বিনম্র শ্রদ্ধায় জাতীয় শোক দিবস পালিত

নিজস্ব সংবাদদাতা
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎবার্ষিকীতে বিনম্র শ্রদ্ধায় জাতীয় শোক দিবস পালন করছে নারায়ণগঞ্জবাসী। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকাল থেকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধায় পুষ্পস্তবক অর্পণ, কোরআন খতম, আলোচনা সভা, খাদ্র সামগ্রী বিতরণসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সোমবার (১৫ আগস্ট) সূর্যোদয়ের সাথে সাথে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রেখে দিন শুরু হয় সরকারি কর্মকর্তা, কর্মচারীদের। সকাল ৬টায় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে কুরআন খতম ও দোয়া মাহফিল আয়োজন করা হয়। এরপর নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে স্থাপিত জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে বিনম্র শ্রদ্ধায় পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মঞ্জুরুল হাফিজ, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জায়েদুল আলম, স্থানীয় সরকার উপ-পরিচালক (উপ-সচিব) ফাতেমা তুল জান্নাত প্রমুখ।
এসময় বিভিন্ন সরকারি বেসরকারী প্রতিষ্ঠান ও রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা একে একে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। সাড়ে ১০টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে আলোচনা সভা, পুরস্কার ও যুব ঋণের চেক বিতরণ, বেলা ১২টায় সার্কিট হাউজের সম্মেলন কক্ষে লেডিস ক্লাব ও জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার আলোচনা সভা, সুবিধাজনক সময়ে জেলখানা, হাসপাতাল, ভবঘুরে কেন্দ্র, এতিমখানা, সরকারি শিশু সদস ও গরীবদের মাঝে উন্নতমানের খাবার বিতরণ করা হয়েছে। মসজিদে বিশেষ মোনাজাত এবং মন্দির, গির্জা, প্যাগোডা ও অন্যান্য ধর্মীয় উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনার।বিকাল ৩টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে আগস্ট ১৯৭৫ নামক চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়েছে। এছাড়া সকালে শহরের ২নং রেল গেট এলাকায় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে (ভাস্কর্য) নারায়ণগঞ্জ সিটি মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীসহ আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। শহরের ২নং রেলগেট সংলগ্ন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল হাই ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা পৃথক পৃথকভাবে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে। এছাড়া নারায়ণগঞ্জ জেলা জুড়েই কয়েক শতাধিক স্পটে দু:স্থদের মধ্যে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়। বিভিন্ন সংগঠনের উদ্যোগে আলোচনা সভা, দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। সরকারি হাসপাতালগুলো ও এতিমখানায় রান্না করা উন্নতমানের খাবার পরিবেশন করা হয়।
জেলা আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা
১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। সোমবার (১৫ আগস্ট) সকাল ১০টায় নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল হাই দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এসময় ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট নিহত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের আত্মার শান্তি কামনা করা হয় এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন নারায়ণগঞ্জ সদর থানা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জসিম উদ্দিন আহমেদ। সভাপতির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাই বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট নিহত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যা করে ঘাতকেরা। ঘাতকরা শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি, হত্যা করে বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিনী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশুপুত্র শেখ রাসেলসহ পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজি জামাল। আমার নেতা শেখ মনি ভাইকেও সেদিন হত্যা করে তারা। তিনি আরও বলেন, শুধু তাই না ঘাতকরা জাতীয় ৪ নেতাকে জেলখানায় নির্মমভাবে গুলি করা হত্যা করে। আমি আজকের এই দিনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুরসহ ১৫ আগস্ট নিহত সকল শহীদ ও জাতীয় ৪ নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি। এসময়ে আরও উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো. শহিদ বাদল, সাবেক নারী সাংসদ এড. হোসনে আরা বাবলী, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান বাচ্চু, বীর মুক্তিযোদ্ধা খবির উদ্দিন আহমেদ, আরজু রহমান ভূঁইয়া, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু, দপ্তর সম্পাদক এম এ রাসেল, উপ-প্রচার সম্পাদক নাসির উদ্দিন, উপ-দপ্তর সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, সদস্য আব্দুল কাদির ডিলার, হাজী আমজাদ হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা মো. শাহজাহান, ফাইজুল রহমান খোকন, আক্তার হোসেন সুকুমসহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা।
সোনারগাঁয়ে কাঙ্গালি ভোজ
জিয়াউর রহমানের পরিকল্পনায় জাতির পিতাকে হত্যা করা হয়েছে উল্লেখ করে নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাবেক সাংসদ আব্দুল্লাহ আল কায়সার হাসনাত বলেছেন, এ দিনে জাতির পিতার পরিবারের ১৮ জন জীবন দিয়েছেন। এর নেতৃত্বে ছিলেন বিএনপির জিয়াউর রহমান। মুক্তিযোদ্ধারা ও রাজনীতি যারা করেন তারা এ ইতিহাসটা জানেন। পরবর্তীতে বিএনপি সরকার ইতিহাসকে পরিবর্তন করার জন্য বইপুস্তকে নানা রকম ভুল তথ্য দিয়ে ইতিহাসকে বিকৃত করার জন্য পায়তারা করেছিলেন। বাংলাদেশের জনগন কিন্তু সেটা জানে। সোমবার (১৫ আগস্ট) দুপুরে মেঘনা শিল্পনগরী স্কুল মাঠে এক দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ এসব কথা বলেন। পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুমের আয়োজনে ও পিরোজপুর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধুর ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে এক গণভোজ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এদিন কায়সার হাসনাত উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ও পৌরসভার বেশ কয়েকটি স্পটে আয়োজিত কাঙ্গালি ভোজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে দুস্থদের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ করেন। উন্নয়নকে বাধাগ্রস্থ করার জন্য বিএনপি আরও একটি পাঁয়তারা করছে মন্তব্য করে সাবেক এই সাংসদ বলেন, বিএনপি এখন জনগণকে উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে আন্দলোনের নামে জ্বালাও পুড়াও ও আন্দলোনের নামে ধংবশাতক কর্মসূচী দেওয়ার সেই ঘোষনা আমরা শুনতে পারছি। আমরা শোকের মাস তাই শোক পালন করছি। বিএনপি নাকি সেপ্টেম্বরে নামবে আমরা শুনতে পারছি। আওয়ামী লীগ জানে আন্দলোন কিভাবে করতে হয় ও কিভাবে ঠেকাতে হয়। সোনারগাঁ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন যদি ঐক্যবদ্ধ থাকে কেনো ষড়যন্ত্র আওয়ামী লীগকে ঠেকাতে পারবে না বলেন সাবেক এই সাংসদ। কাঙ্গালিভোজে কায়সারের সাথে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক এড. শামসুল ইসলাম ভূইয়া, যুগ্ম আহবায়ক ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদূর রহমান মাসুম, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার ফেন্সি, সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ, কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাসরিন সুলতানা ঝরা, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও আহ্বায়ক কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম নান্নু, পৌরসভার মেয়রপ্রার্থী এড. ফজলে রাব্বিসহ আহ্বায়ক কমিটির অন্যান্য সদস্য ও আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
পিবিআই’র শ্রদ্ধা নিবেদন
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে নানা কর্মসূচি পালন করছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর নারায়ণগঞ্জ জেলার ইউনিট। নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে সোমবার (১৫ আগস্ট) সকাল ১০ টায় বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে পুলিশ সুপার জাতির জনকের জীবন ও কর্মের উপর আলোকপাত করেন।নারায়ণগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম এর নেতৃত্বে ইউনিটের সকল অফিসার ও ফোর্স এ সময় উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও জাতির পিতাসহ তার পরিবার এবং ১৫ই আগস্টে নিহত সকল শহিদের রুহের মাগফেরাত ও কল্যাণ কামানা করে বিশেষ দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠান শেষে সকল অফিসার ও ফোর্সদের জন্য বিশেষ খাবারের আয়োজন করা হয়।
ব্যাটালিয়ান (৬২ বিজিবি) নানা কর্মসূচি
নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে নারায়ণগঞ্জে জাতীয় শোক দিবস পালন করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ ব্যাটালিয়ান (৬২ বিজিবি)।
স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সোমবার (১৫ আগস্ট) জালকুড়িতে অবস্থিত কার্যালয়ে এ সকল কর্মসূচি পালন করা হয়। দিনটির শুরুতেই কালো ব্যাজ পরিধান করে বিজিবির সদস্যরা। এরপর জাতীয় পতাকা উত্তোলণ ও কোরআন খতমের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি সূচনা হয়। বেলা ১২টায় শোক দিবস উপলক্ষে বিশেষ আলোচনা সভা ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জীবনীর উপর নমিত প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় প্রধান আলোচক ছিলেন নারায়ণগঞ্জ ব্যাটেলিয়ন ৬২ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. খালেকুজ্জামান। সর্বশেষে সদস্যদের রেশন থেকে বাঁচিয়ে ২শ’ জন অসহায় গরিব ও দুস্তদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে ছিলো চাল ৫ কেজি, ডাল ২ কেজি, চিনি ১ কেজি, তেল ১ কেজি ও আলু ১ কেজি। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন উপ-অধিনায়ক মেজর এস এম হাবিব ইবনে জাহান, ভারপ্রাপ্ত কোয়ার্টার মাস্টার সহকারি পরিচালক হায়দার আলী, কুতুবপুর ইউনিয়নের সদস্য অনামিকা হক, ৪নং ওয়াডের সদস্য মো. জামান মিয়া প্রমুখ।
ভোক্তা অধিদফতরের শ্রদ্ধা
জাতীয় শোক দিবস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণঅধিদফতর নারায়ণগঞ্জ জেলা কার্যালয়। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদফতর নারায়ণগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক মো. সেলিমুজ্জামানের নেতৃত্বে সোমবার (১৫ আগস্ট) সকালে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনের আয়োজনের জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে নমিতবঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, কনজুমারস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক বিল্লাল হোসেন রবিন, কার্যকারী সদস্য কাজী আরিফ মেহেদী সিজান, নাজিমুর রহমান নাদিম প্রমুখ।
না’গঞ্জ চেম্বার অব কমার্সএন্ড ইন্ডাস্ট্রি
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে, সোমবার (১৫ আগস্ট) বিকেল ৪টায় নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্র্রি’র মিলনায়তনে নারায়ণগঞ্জের সর্বস্তরের ব্যবসায়ীদের উপস্থিতিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ও তার পরিবারের শহীদ সদস্যদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘ ও সুস্থ জীবন কামনায় বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত হয় এবং শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ ও জাতির সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় কামনা করা হয়। উক্ত দোয়া মাহফিলে নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্র্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, সিনিয়র সহ-সভাপতি মোরশেদ সারোয়ার সোহেল, পরিচালক সাবেক সংসদ সদস্য সংরক্ষিত আসন হোসনে আরা বেগম বাবলী, ফারুক বিন ইউসুফ পাপ্পু, সোহেল আক্তার সোহান, সেলিম সারোয়ার, বিকেএমইএ পরিচালক, খন্দকার সাইফুল ইসলাম, জাকারিয়া ওয়াহিদ, বাংলাদেশ পাল্স লিন্টিং ক্রাশিং ওনার্স এসোসিয়েশন সভাপতি এড.সুলতান উদ্দিন নান্নু, বিকেএমইএ সাবেক পরিচালক (অর্থ) জি এম ফারুক, বাংলাদেশ ইয়ার্ণ মার্চেন্ট এসোসিয়েশন পরিচালক মজিবুর রহমান, নারায়ণগঞ্জ জেলা দোকান মালিক সমিতি সহ-সভাপতি আরিফ দিপুসহ নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্র্রি’র সদস্যবৃন্দ। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন ফকিরটোলা জামে মসজিদের সাবেক খতিব সিরাজুল ইসলাম মনির।
জেলা পূজা পরিষদের কর্মসূচি
দিনব্যাপী নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উদযাপন করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ। সোমবার (১৫ আগস্ট) সকালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদনের মাধ্যমে কর্মসূচি শুরু করেন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। পরে সকাল ১১টায় চাষাঢ়ায় অবস্থিত গোপাল জিউর মন্দিরে এ বিশেষ প্রার্থনা সভার আয়োজন করা হয়। এসময় ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট নিহত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের আত্মার শান্তি কামনা করা হয় এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ প্রার্থনা পরিচালনা করেন মন্দিরের পুরোহিত চন্দন চক্রবর্তী। প্রার্থনা সভায় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শিখন সরকার শিপন, যুগ্ম সম্পাদক সাংবাদিক উত্তম সাহা, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক খোকন বর্মন, পূজা পরিষদ নেতা তপন গোপ সাধু, সুজন বিশ্বাস, কৃষ্ণ আচার্য্য, ১৪নং ওয়ার্ড পূজা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক বিশ্বজিত সাহা, সদস্য সচিব অমর ঘোষ, সদস্য মধুসুদন ঘোষ, তারক ঘোষ, মধু দাস, নীলকমল পোদ্দার, ভরত দাস, গৌতম দে, জুয়েল সাহা, গোবিন্দ সাহা, পাপ্পু সাহা, ত্রিনাথ সাহা প্রমুখ। এছাড়াও বন্দর, সিদ্ধিরগঞ্জ, সোনারগাঁও, আড়াইহাজার, রূপগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বিশেষ প্রার্থনা, দরিদ্রদের মাঝে রান্না করা খাবার বিতরণ ও আলোচনা সভার আয়োজন করে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদ।
রূপগঞ্জ
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের ৪৭তম শাহ্দাৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে সোমবার (১৫ আগস্ট) নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, আওয়ামীলীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন, রূপগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবসহ রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন নানা কর্মসূচি পালন করে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল জাতীয় পতাকা ও কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাচ ধারণ, বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, চিত্রাংকন-রচনা প্রতিযোগিতা, শোকসভা। সরকারি মুড়াপাড়া কলেজ গাজী অডিটোরিয়ামে আয়োজিত শোক সভায় সভাপতিত্ব করে রূপগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আলহাজ¦ কামরুল হাসান তুহিন। সভায় বক্তব্য রাখেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক, রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ মো. শাহজাহান ভুঁইয়া, তারাবো পৌরসভার মেয়র হাসিনা গাজী, কাঞ্চন পৌরসভার মেয়র আলহাজ¦ রফিকুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা ফেরদৌসী আলম নীলা, মুড়াপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ¦ তোফায়েল আহমেদ আলমাছ, রূপগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ¦ ছালাউদ্দিন ভুঁইয়া, রূপগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান শাহিন, রূপগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মোতাহার হোসেন নাদিম, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল আজিজ, গোলাম রসুল কলি, তাবিবুল কাদির তমাল, এডভোকেট সাইফুর রহমান স্বপন, জাহেদ আলী, আব্দুল মান্নান মুন্সী, বরকত উল্লাহ ও রূপগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি এম.এ মোমেন প্রমুখ। সভায় বক্তারা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান আমাদের স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। তিনিই স্বাধীনতার মূল নায়ক। বঙ্গবন্ধুর খুনীরা এখনো ষড়যন্ত্র করছে। সাজাপ্রাপ্ত খুনীদের বিদেশ থেকে দেশে এনে শাস্তি দিতে হবে।
পরে বিশেষ মোনাজাত শেষে সকলের মধ্যে রান্না করা খাবার বিতরণ করা হয়।
আড়াইহাজার
আড়াইহাজারে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তমশাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসুচি পালন করেছে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলার আওয়ামীলীগ। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে প্রথমেই মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। পরে আড়াইহাজার মুক্তিযোদ্ধা এস এম মাজহারুল হক অডিটরিয়ামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলামের সভাপতিতে এক আলোচনা সভা, মিলাদ মাহফিল এবং দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-২ (আড়াই হাজার) আসনের এমপি আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম বাবু। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান মুজাহিদুর রহমান হেলো সরকার, উপজেলা ভাই চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিক, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ঝর্ণা রহমান, সহকারি কমিশনার (ভূমি) পান্না আক্তার, উপজেলা প্রকৌশলী মো. আরিফুর রহমান, আড়াইহাজার থানার ওসি আজিজুল হক হাওলাদার, আড়াইহাজার পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব সুন্দর আলী, গোপালদী পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব আব্দুল হালিম শিকদার, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম ভূঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব খুরশিদ আলম সরকার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক জুয়েল, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি আহমেদুল কবির উজ্জল, সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম ভূঁইয়া, উপজেলা ছাত্রলীগের আহŸায়ক রাজিবুল ইসলাম জুয়েল, আব্দুল কাদের উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও আওয়ামী লীগ নেতা আ. কাদের। এছাড়াও উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গসংগঠনের সকল নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। আড়াইহাজারের ১০টি ইউনিয়ন এবং দু’টি পৌরসভায়আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ সংগঠনের সকল নেতা কর্মীরাউপজেলার সর্বত্র পৃথক পৃথক স্থানে এ দিবসটি উপলক্ষে অলোচনাসভা, মিলাদ মাহফিল, বিশেষ মুনাজাত এবং কাঙ্গালী ভোজের অয়োজন করে।
চেক বিতরণ
আড়াইহাজারে যুবউন্নয়ন অধিদফতর কর্তৃক প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত ১৪ জন বেকার যুবকের মধ্যে ঋনের টাকার চেক বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার (১৫ আগস্ট) জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা শেষে উপজেলা যুবউন্নয়ন অধিদফতর কর্তৃক বিভিন্ন অংকের টাকার এ চেক বিতরণ করা হয়।
সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রফিকুল ইসলাম। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-২ ( আড়াইহাজার) আসনের এমপি আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম বাবু। এ ছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) পান্না আক্তার, যুবউন্নয়ন কর্মকর্তা কাজী জিকরুর রহমান, উপজেলা চেয়ারম্যান মুজাহেদুর রহমান হেলো সরকার, চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিক, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সিরাজুল ইসলাম ভূঁইয়া, আড়াইহাজার পৌর মেয়র আলহাজ্ব মো. সুন্দর আলী, গোপালদী পৌর মেয়র আলহাজ্ব আ. হালিম সিকদার, থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মোজাম্মেল হক জুয়েল প্রমুখ।
সোনারগাঁ আ’লীগ
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদৎ বার্ষিকী উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে সোনারগাঁ আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দরা। সোমবার (১৫ আগস্ট) সকালে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক এড. সামসুল ইসলাম ভুইয়া ও যুগ্ম আহ্বায়ক নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল্লাহ্ আল কায়সারের নেতৃত্বে সোনারগাঁ উপজেলা চত্বরে জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক এড. শামসুল ইসলাম ভূইয়া, যুগ্ম আহবায়ক ও পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাসুদূর রহমান মাসুম, আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মোগরাপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আরিফ মাসুদ বাবু, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহমুদা আক্তার ফেন্সি, সনমান্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ হাসান জিন্নাহ, কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নাসরিন সুলতানা ঝরা, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও আহ্বায়ক কমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম নান্নু, পৌরসভার মেয়রপ্রার্থী এড. ফজলে রাব্বিসহ আহ্বায়ক কমিটির অন্যান্য সদস্য ও আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।
হোমনা
কুমিল্লার হোমনায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি পালন উপলক্ষে সোমবার (১৫ আগস্ট) উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়। সকালে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে স্থানীয় সাংসদ সেলিমা আহমাদ, উপজেলা প্রশাসন, পৌরসভা, হোমনা সার্কেল, থানা ও আওয়ামী লীগ ও সহযোগী অঙ্গ সংগঠনসহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে বিশেষ মোনাজাত করা হয়। পরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) রুমন দের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন স্থানীয় সাংসদ সেলিমা আহমাদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রেহানা বেগম। পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা স্বপন চন্দ্র বর্মনের সঞ্চলনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পৌর মেয়র এড. মো. নজরুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান মহাসিন সরকার ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাছিমা আক্তার রীনা, সহকারি কমিশনার (ভূমি) ইউছুফ হাসান, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইফুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা মো. হুমায়ুন কবির খন্দকার, ইউপি চেয়ারম্যান তাইজুল ইসলাম ও যুবলীগ সভাপতি খন্দকার নজরুল ইসলাম, সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য মহিউদ্দিন খন্দকার, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান সরকার, ছাত্রলীগ সভাপতি ফয়সাল সরকার প্রমুখ। পরে বিভিন্ন প্রতিযোগীতায় বিজয়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার এবং বেকার যুবক, মহিলাদের মাঝে যুবঋণ বিতরণ করা হয়।
যুব ঋণ বিতরণ কুমিল্লার হোমনায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বেকার যুবক ও যুব মহিলাদের মাঝে যুব ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার (১৫ আগস্ট) উপজেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উদ্যোগে অনুষ্ঠানিকভাবে প্রধান অতিথি সেলিমা আহমাদ এমপি ১২ লাখ ৬০ হাজার টাকা যুবঋণের চেক বিতরণ করেন। এতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুমন দের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রেহানা মজিদ, পৌর মেয়র এড. মো. নজরুল ইসলাম, ভাইস চেয়ারম্যান মহসীন সরকার ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নাছিমা আক্তার রীনা, সহকারি কমিশনার (ভূমি) ইউছুফ হাসান, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইফুল ইসলাম, সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য মহিউদ্দিন খন্দকার, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চলনায় ছিলেন পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা স্বপন চন্দ্র বর্মন। উপজেলার ২৬ জন বেকার যুবক ও যুব মহিলার মাঝে ১২ লাখ ৬০ হাজার টাকা যুবঋণ বিতরণ করা হয়।
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড
মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের জেলা শাখার আহŸায়ক শরীফ উদ্দিন সবুজ বলেছেন, বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ড জাতিগতভাবে আমাদের অকৃতজ্ঞতার উদাহরণ। আমি নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাব, নারায়ণগঞ্জ সাংবাদিক ইউনিয়নসহ বিভিন্ন সংগঠনের সাথে জড়িত। যাদের চাকরি দিয়েছি, সাংবাদিকতায় এনেছি তাদের কেউ যখন আমার বিরোধীতা করে তখন বঙ্গবন্ধুকে দেখে সান্তনা পাই। যিনি একটি দেশ দিয়ে গেছেন তাকেই এদেশেরই কেউ সপরিবারে হত্যা করেছে। তাই যাদের জন্য করেছি তারা আমার ক্ষতি করবে এটা-ই স্বাভাবিক। তিনি বলেন, রোহিঙ্গারা অনেক বছর ধরে স্বাধীনতা চাচ্ছে। পাকিস্তানের বেলুচরা স্বাধীনতা চাচ্ছে। কিন্তু বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মতো নেতা নেই বলে তারা স্বাধীন হতে পারছে না। তিনি বলেন, সোমবার (১৫ আগস্ট) দুপুরে সিদ্ধিরগঞ্জের২নং ঢাকেশ্বরী এলাকায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভা ও কাঙ্গালি ভোজ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।  মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড জেলা ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা শাখা আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা শাখার যুগ্ম আহŸায়ক সাব্বির আহমেদ রিংকু। বক্তব্য রাখেন স্থানীয় নারী কাউন্সিলর মনোয়ারা বেগম, সন্তান কমান্ডের যুগ্ম আহŸায়ক মুরাদ হোসেন, সদস্য সচিব ইঞ্জিনিয়ার রাজিব, ডা. ওয়াজেদুর রহমান, নেত্রী নীলা আহমেদ নিশি, সন্তান কমান্ডের সিদ্ধিরগঞ্জ থানা শাখার নেতা বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সাব্বির আহাম্মদ, মাহাবুব আলম সেলিম, জামান দেওয়ান প্রমুখ।
শহর যুবলীগ
জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে রান্না করা খিচুড়ি বিতরণ করেন শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন ভূইয়া সাজনু। সোমবার (১৫ আগস্ট) সকাল থেকে তিনি জেলার বিভিন্ন ওয়ার্ড ও ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগসহ দলটির সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে কাঙ্গালি ভোজ ও দোয়া মাহফিলে অংশগ্রহণ করেন। এসময় তার সঙ্গে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের স্থানীয় নেতাকর্মীসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরাও উপস্থিত ছিলেন। শাহাদাৎ হোসেন সাজনু বলেন, ১৯৭১ সালে বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ স্বাধীনতা অর্জন করেছে। সোনার বাংলা গড়ার জন্য জাতির জনক যখন কাজ করছিলেন তখন ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট এ দেশের কিছু কুলাঙ্গার সন্তান এবং পাকিস্তান দোসকদের যোগসাজগে জাতির জনককে হত্যা করে। তারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে বাংলাদেশকে ধুলিস্যাত করতে চেয়েছিলো। কিন্তু ওরা জানতো না বাংলা মানে বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধু মানে বাংলাদেশ। তারই সুযোগ্য কন্যা দেশনেত্রী শেখ হাসিনা তার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ মাধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে। ২০৪১ সালে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে। আপনারা শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করবেন। পরিশেষে ১৫ আগস্টে জাতির জনকসহ তার পরিবারে যাদেরকে হত্যা করা হয়েছে তাদের সকলের জন্য দোয়া কামনা করেছেন তিনি। এর আগে সকাল ৯টায় জাতির জনকের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান যুবলীগের এ নেতা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

thirteen − thirteen =


Theme Created By Raytahost.Com