Logo
HEL [tta_listen_btn]

হোমনায় চালের গদিতে বিস্ফোরণ

হোমনায় চালের গদিতে বিস্ফোরণ

হোমনা সংবাদদাতা
প্রতিদিনের মতো দিন শেষে রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় শাটার তালাবদ্ধ করা হয় আলাউদ্দিন ট্রেডার্সের পাইকারী চালের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি। রাত ২টা ২৬ মিনিট। দোকানের ভেতরে হঠাৎ প্রচন্ড বিস্ফোরণ। বিকট শব্দে আতঙ্কে ঘুম ভাঙ্গে আশপাশের মানুষের। ঘর থেকে ছুটে বের হন অনেকেই। লোকজন দোকানে ঢুকে অগ্নিনির্বাপন যন্ত্র দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণ করেন। রাতে দোকানে কেউ ছিলেন না। ফলে কেউ হতাহত হয়নি। তবে ৫/৬ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভুক্তভোগী। কীভাবে এবং কীসের মাধ্যমে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে কেউ বলতে পারছে না। আপাতত পুলিশও বলতে পারছে না এর কারণ। ফলে সৃষ্টি হয়েছে রহস্যের। সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) কুমিল্লার হোমনায় পল্লী বিদ্যুৎ অফিস সংলগ্ন আলাউদ্দিন ট্রেডার্সে রহস্যজনক এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার ব্যাপারে থানাকে জানানো হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে খবর পেয়ে রাতেই ছুটে আসেন চালের গদির মালিক ব্যবসায়ী মো. আলাউদ্দিন। এসময় বিস্ফোরনের কোনো আলামতও দেখেননি কেউ। অথচ বিস্ফোরণ, আগুন, ধোয়া। তালা লাগানো অবস্থায় শক্তিশালী শাটার ভেঙে দুমরে মুচড়ে বাইরে ছিটকে পড়ে আছে। সকালে সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, চালের গদির ভেতরের উত্তর দিকে একটি ভেন্টিলেটর আগুনে কালচে দাগ পড়ে গেছে। ভেতরে সেটি অক্ষত থাকলেও বাইরে থেকে কিছু অংশ ভাঙা। স্টেক ভেঙে চালের বস্তা এলোমেলো। দু’টি শাটার বাইরে দুমরে মুচড়ে পড়ে আছে। দোকানের সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায়, রাত ২টা ২৬ মিনিটে দোকানের ভেতরে বোমার মতো প্রচন্ড বিস্ফোরণে আগুনের কুÐুলী নিচে পড়ছে; ধোঁয়া নির্গত হচ্ছে। প্লাস্টিকের চালের বস্তা থেকে চাল গড়িয়ে পড়ছে। আগুন নিভে গেছে। চালের গদির মালিক ব্যবসায়ী আলাউদ্দিন বলেন, প্রতিদিনের মতো সেদিনও আমার পাইকারী চালের দোকানটি তালবদ্ধ করে বাড়িতে চলে যাই। মধ্যরাতে স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে আমার দোকানে বিস্ফোরণে আগুন লাগার খবর পেয়ে ছুটে আসি। এসে দেখি বিস্ফোরণের কারণে দোকানের শাটার ভেঙে বাইরে পড়ে রয়েছে। বিস্ফোরণের আগুনে ২শ’ ৩০ বস্তা চাল বিনষ্ট হয়ে ৫/৬ লাখ টাকার ক্ষতি হয়। আশপাশের লোকজন এসে অগ্নিনির্বাপণ গ্যাস স্প্রে করে আগুন নিয়ন্ত্রণ করে। দোকানের ভেন্টিলেটরটি ভাঙা ও আগুনে পোড়া চিহ্ন রয়েছে। তিনি আরও বলেন, কেউ হয়তো শত্রæতাবশত আমার ক্ষতি করার উদ্দেশ্যে ভেন্টিলেটর ভেঙে দোকানের ভেতরে বিস্ফোরক দ্রব্য নিক্ষেপ করে নাশকতামূলক ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে। কুমিল্লা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-৩ এর ডিজিএম শওকাতুল আলম জানান, তিনিও বোমার মতো বিস্ফোরণের প্রচন্ড শব্দ শুনেছেন। তবে বিকট শব্দের কারণ বলতে পারবেন না। এ ব্যাপারে হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে গ্যাসের বিস্ফোরণ। ভেতরে কোনো বিষাক্ত গ্যাস জমে এমন বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটতে পারে। বিস্ফোরণের কোনো আলামত পাওয়া যায়নি। অধিকতর তদন্ত ছাড়া এ বিস্ফোরণের সঠিক কারণ বলা যাচ্ছে না।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost.Com