Logo

১ অক্টোবর জেলা আ’লীগের বর্ধিত সভা পদ পেতে গ্রুপিং লবিং তুঙ্গে

১ অক্টোবর জেলা আ’লীগের বর্ধিত সভা পদ পেতে গ্রুপিং লবিং তুঙ্গে

দেশের আলো রিপোর্ট
শহরের ২নং গেট এলাকায় অবস্থিত মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে ১ অক্টোবর বর্ধিত সভা আহŸান করা হয়েছে। এই সভাকে কেন্দ্র করে জেলার সর্বত্র আওয়ামী লীগ নেতা কর্মীদের মাঝে সাজসাজ রব পড়েছে। নিজেদের ইচ্ছেমতো পদ ছিনিয়ে নিতে জোর লবিং এবং গ্রæপিং চলছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে প্রকাশ। সূত্র জানায়,জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে দল গোছাতে শুরু করেছে আওয়ামী লীগ। আর এরই ধারবাহিকতায় অক্টোবর মাসেই অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন। আর বিষয়টিকে প্রাধান্য দিয়ে অক্টোবরের ১ তারিখে অনুষ্ঠিত হবে জেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের একাধিক নেতৃবৃন্দ। তারা জানিয়েছেন, শহরের ২নং গেট এলাকায় অবস্থিত মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে এই বর্ধিত সভার আয়োজন করা হবে। উক্ত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম। জানা গেছে, ২০১৬ সালে ঘোষনা হওয়া এই কমিটির বিভিন্ন নেতাকর্মীর নানা কর্মকান্ডের ফিরিস্তি পৌঁছেছে কেন্দ্রে। আর এজন্য পুরনো কমিটি বিলুপ্ত করে নতুন কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া ইতোমধ্যেই শুরু হয়েছে। বিভিন্ন নেতাদের খোঁজ নেয়া শুরু হয়েছে। আর এই সব রিপোর্ট যাবে আওয়ামী লীগ সভা নেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে। বর্তমানে সফরের কারণে বিদেশে অবস্থান করছেন প্রধানমন্ত্রী। দেশে ফিরেই সংগঠনের বিষয়ে নানান পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন তিনি। সুত্র মতে, নতুন কমিটিতে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ বিভিন্ন পদ প্রত্যাশী রয়েছে অনেকেই। এদের মাঝে সভাপতি পদের জন্য যাদের নাম উঠে আসছে তারা হলেন, জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান সভাপতি আব্দুল হাই, রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, এনসিসি মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল কাদির, মিজানুর রহমান বাচ্চু প্রমুখ। অপর দিকে সাধারণ সম্পাদক পদের জন্য যাদের নাম শোনা যাচ্ছে তারা হলেন, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গির আলম, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, বিসিবি পরিচালক গোলাম মর্তুজা পাপ্পা, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান প্রমুখ। ইতোমধ্যে বিভিন্ন পদ পদবির জন্য কেন্দ্রে লবিংও করা শুরু করেছেন অনেক নেতাই। তবে তা করে কোন লাভ হবে না বলে মনে করছেন অনেক আওয়ামী লীগ নেতা। কেননা যোগ্য অনুযায়ী এবার নেতাদের পদ দিবেন আওয়ামী লীগ সভা নেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া নারায়ণগঞ্জের বলয় ভিত্তিক রাজনীতির কথা এখন কারোই অজানা নয়। সেই বিষয়টিকেও গুরুত্ব সহকারে দেখছেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। আর এই সব কিছু দেখেই কমিটির অনুমোদন করা হবে। এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদল বলেন, আমরা আমাদের বর্ধিত সভার আয়োজন অনেকটা সম্পন্ন করেছি। বর্ধিত সভায় আমাদের সম্মেলনের বিষয়য়টিকেই বেশি প্রাধান্য দেয়া হবে। উক্ত সভাতেই আমাদের সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করা হবে। জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান বাচ্চু বলেন, বর্ধিত সভায় আমাদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম উপস্থিত থাকবেন। সেকারণে সকলে তার অভিযোগ প্রকাশ করবেন। যে যার যার মত প্রকাশ করবে। পরবর্তিতে সম্মেলনের তারিখ নির্ধারণ করে নতুন কমিটির অনুমোদন হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

twenty + 10 =


Theme Created By Raytahost.Com