Logo
HEL [tta_listen_btn]

জাতীয় সংসদ নির্বাচন  ইসলামী দলগুলোতেঐক্যের সুবাতাস

জাতীয় সংসদ নির্বাচন  ইসলামী দলগুলোতেঐক্যের সুবাতাস

দেশের আলো রিপোর্ট
আসন্ন সংসদ নির্বাচনে ঐক্যবদ্ধভাবে অংশগ্রহণের লক্ষ্য নিয়ে নারায়ণগঞ্জের ইসলামী দলগুলো এক পতাকাতলে সমবেত হওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে। ইসলামী দলগুলোতে ঐক্যের সুবাতাস বইছে। ধীরে ধীরে সরব হতে শুরু করেছে তারা। এর মধ্যে নানা ব্যানারে বিভিন্ন কর্মসূচি করে সক্রিয় হয়েছে হেফাজতে ইসলাম, জমিয়তে ওলামা, খেলাফত মজলিস, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দল। নির্বাচন সামনে রেখে সক্রিয় হতে চাওয়া এসব দল কখনো আওয়ামী লীগ, কখনো বিএনপির সঙ্গে মিলে রাজনীতি করলেও নির্বাচন ঘিরে কোন পথে যাবে তা এখনো পরিষ্কার না হলেও আপাতত রাজপথে নিজেদের অবস্থান জানান দিচ্ছে। নিজেদের মূল্যায়ন বাড়াতে কাজ করবে তারা এমনটাই জানা গেছে দলগুলোর নেতাদের সঙ্গে কথা বলে। স¤প্রতি বিভিন্ন ব্যানারে অরাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করে মাঠে কর্মীদের চাঙ্গা করছে ইসলামী দল হেফাজতে ইসলাম, জমিয়তে ওলামা বাংলাদেশ, ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ। একই অবস্থা ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ও খেলাফত মজলিসেরও। এর মধ্যে সবগুলো ইসলামিক দল একটি আলাদা বৃহৎ ঐক্য গড়ে তুলে নিজেদের শক্তি জানান দিতে চাইছে। ইসলামিক দলগুলোর প্রায় সবগুলোই বর্তমানে চাইছে নিজেদের মধ্যে থাকা দূরত্ব ঘুচিয়ে সামনের নির্বাচনের জন্য নিজেদের প্রস্তুত করতে। আর তাই নীতিগত অবস্থানে এক থাকা এসব দলগুলো এখন ঐক্য করতে করছে বৈঠক। সব ঠিক থাকলে আগামী বছরের শুরুতেই ঐক্যের ঘোষণা আসতে পারে দলগুলোর। দলগুলোর বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে নির্বাচন নিয়ে কথা হলে তারা জানান ভিন্ন কথা। ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের চেয়ারম্যান বাহাদুর শাহ জানান, আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবো। আমরা সুষ্ঠু অবাধ নির্বাচন চাই। হেফাজতে ইসলামের নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান জমিয়তে ওলামা ইসলামের জেলার সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান জানান, আমি তো জমিয়তের কেন্দ্রীয় শ্রমবিষয়ক সম্পাদকও। যেহেতু আমরা গতবার নারায়ণগঞ্জ-৪ আসন থেকে নির্বাচন করেছি সেহেতু এবারো আমরা চিন্তা ভাবনা করছি। হেফাজতের তো বর্তমানে কোনো কমিটি নেই, অনেক নেতা কারাগারে। আমরা ইসলামী অঙ্গনে যারা কাজ করি বিভিন্ন দলের সবাই এক। আমাদের সবার যেকোনো সময়ে বৃহৎ স্বার্থে যেকোনো ঐক্যবদ্ধ সিদ্ধান্ত আসতে পারে। পরিস্থিতি দেখে কেন্দ্র এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। নারায়ণগঞ্জ জেলা খেলাফত মজলিসের আমির এবিএম সিরাজুল মামুন জানান, আমাদের খেলাফত মজলিসের মহাসচিব কয়েকদিন আগে বলেছেন আমরা চাই নির্বাচনকালীন সরকার। সেটা যে নামেই দেওয়া হোক। সেটা তত্বাবধায়ক সরকার হোক বা নির্দলীয় কোনো সরকার হোক। আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রেখে আমরা কোনো নির্বাচনে যাবো না। এটা আমাদের কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্ত। ইসলামী আন্দোলনের জেলার সহ-সভাপতি মুফতি মাসুম বিল্লাহ জানান, দলীয় সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনে আমরা যাবো না। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচনে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। আমরা আওয়ামী লীগ বিএনপির সঙ্গে কোনো জোট করবো না। আমাদের ইসলামী দলগুলোকে নিয়ে একটা বৃহৎ ঐক্যের চিন্তা চলছে। কেন্দ্রীয় পর্যায়ে এ নিয়ে বৈঠক চলছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost.Com