Logo
HEL [tta_listen_btn]

নরসিংদীতে স্ত্রীর হাতে স্বামী খুন

নরসিংদীতে স্ত্রীর হাতে স্বামী খুন

ঢাকা অফিস
নরসিংদীর বেলাব উপজেলার সল্লাবাদ ইউনিয়নের নিলক্ষীয়া গ্রামের স্ত্রীর দায়ের কোপে স্বামী অহিদুজ্জামান (৬৫) নিহত হয়েছেন।বুধবার (২ নভেম্বর) দিবগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ওই গ্রামে একটি বাড়ির পাশ থেকে মরদেহ উদ্ধার ও ঘাতক স্ত্রী আয়েশা আক্তারকে (৩৮) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (৩ নভেম্বর) দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের (এসপি) কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে করে এ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) মো. আল-আমিন। নিহত অহিদুজ্জামান উপজেলার সল্লাবাদ ইউনিয়নের নিলক্ষীয়া গ্রামের মুত সুলতান মিয়ার ছেলে। তিনি কৃষি কাজ করতেন। তাদের সংসারে ৬ মেয়ে ও ৩ ছেলে রয়েছে। সম্মেলনে জানানো হয়, বুধবার দিবাগত রাতে নিলক্ষীয়া গ্রামে বাড়ির পাশে অহিদুজ্জামানের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা থানায় খবর দেন। পরে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নিহত অহিদুজ্জামানের ঘরের দরজায় রক্তের সামান্য দাগ পাওয়া যায়। এছাড়া আশপাশের আলামত দেখে পুলিশের সন্দেহ হয় খুনটা ঘরের ভেতরে হয়েছে। পরে নিহতের স্ত্রী আয়েশাকে দীর্ঘ জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে সে খুনের কথা স্বীকার করেন। জিজ্ঞাসাবাদে সে জানান, তার স্বামী একজন মাদকসেবী। গাঁজা সেবন করে প্রায়ই তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতো। বুধবার রাত ৯টা থেকে আয়েশার সঙ্গে ঝগড়া শুরু করেন অহিদুজ্জামান। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে অহিদুজ্জামান দা দিয়ে তাকে কোপ দিতে এলে দু’জনের ধস্তা-ধস্তি হয়। একপর্যায়ে দা কেড়ে নিয়ে অহিদুজ্জামানের গলায় কোপ দেন আয়েশা। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন তার স্বামী। আরও জানানো হয়, আয়েশা তার স্বামীকে হত্যা করে মরদেহ ঘরের বাইরে উঠানে রাখেন। বিছানায় থাকা কম্বল ও কাথা টিউবওয়ের বালতিতে ধৌঁত করে। হত্যার কাজে ব্যবহৃত দা ধৌঁত করে মুছে চৌকির নিচে রেখে বিছানা ঠিক করে শুয়ে পরেন। একটু পরে ঘর থেকে বের হয়ে চিৎকার করে তার স্বামীকে কে বা কারা হত্যা করেছে বলে প্রতিবেশীদের জানান। এ ঘটনায় হত্যার আলামত হিসেবে রক্তমাখা দা, কম্বল, কাঁথা এবং ওড়না জব্দ করা হয়েছে। ডিএসবি মো. আল-আমিন বলেন, এ ঘটনায় বেলাব থানার মামলায় আয়শাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Theme Created By Raytahost.Com