Logo

সরস্বতী পূজা পরিদর্শনকালে নির্মল রঞ্জন গুহ. দেবোত্তর সম্পত্তি দখল করা দুঃখজনক

সরস্বতী পূজা পরিদর্শনকালে নির্মল রঞ্জন গুহ, দেবোত্তর সম্পত্তি দখল করা দুঃখজনক

নিজস্ব সংবাদদাতা:
কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ বলেছেন, একজন আওয়ামী লীগ নেতা এবং আওয়ামী লীগ পরিবারের লোকজন যদি দেবোত্তর সম্পত্তিতে হস্তক্ষেপ করে, তবে এর চেয়ে দুঃখজনক আর কিছু হতে পারে না। আমি অনুরোধ করবো যদি এর সাথে কোন অশুভ শক্তি থাকে দলের কাউকে ভুল বুঝিয়ে দলের ক্ষতি করার চেষ্টা করা হয় তাহলে তা খুবই দুঃখজনক। এ দেশের নাগরিক হিসেবে আমি আমার ন্যায্য অধিকারটুকু চাই। একজন সা¤প্রদায়িক লোক কখনো আওয়ামী লীগের হতে পারে না। আমি যদি আওয়ামী লীগ করি পাশাপাশি অন্যের জমি প্রতিরোধ থাকে তাহেল সেটি ব্যক্তির জন্য কলঙ্কজনক এবং দলকে কলুষিত করছে। মঙ্গলবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে শহরের নগর খানপুর গোয়ালপাড়া এলাকায় সরস্বতী পূজা পরিদর্শনের সময়, প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, একজন ভিন্ন স¤প্রদায়ের লোক যদি হিন্দু স¤প্রদায়ের লোককে আক্রমণ করে বা জায়গা দখল করে। তখন ঐ স¤প্রদায়ের লোক মনে করে আওয়ামী লীগের নেতার কাছে যায়, এমপিদের কাছে যায়। তারা প্রত্যাশা করে তার কাছে গেলে আশ্রয় পাবো। কিন্তু দলের কেউ উল্টো কাজ করলে তাতে দুঃখ পায়। আমি আশা করবো আওয়ামী লীগের যারা আছেন তারা সত্য ঘটনা উদঘাটন করবেন এবং আপনাদের ভাবমূর্তি বিদ্ধ হবে, যদি দেবোত্তর সম্পত্তি উদ্ধার না হয় এবং ধর্মীয় অনভুতিতে আঘাত হানা কারোর জন্য ঠিক হবে না। নির্মল রঞ্জন গুহ বলেন, এ সরকার একদিকে যেমন মডেল মসজিদ গড়ছে অন্যদিকে মন্দির সংস্করণে অনুদান দিচ্ছে। সা¤প্রদায়িক চেতনা থাকলে আমি কখনো স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হতে পারতাম না। আমি দলের নেতা হলাম সে ক্ষমতা দেখিয়ে আমি লুটপাটের রাজনীতি করলাম, তাহলে আমি নিজে কতটুকু লাভবান হলাম জানি না কিন্তু আমার দল ক্ষতিগ্রস্থ হল। আমাদের প্রধানমন্ত্রী একটি তলাবিহীন ঝুড়িওয়ালা বাংলাদেশকে স্বল্প মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করেছেন। তিনি বলেন, পৃথিবীর অনেক দেশে ভ্যাকসিন পায় নাই। সেখানে শেখ হাসিনার দূরদর্শিতার কারণে তিনি আগেই ভ্যাকসিনের জন্য অগ্রিম টাকা দিয়ে রেখেছেন। এ দেশে আজ সবাই ভ্যাকসিন পাচ্ছে। অথচ বিরোধী দল অনেক কুৎসা রটনা করেছেন এই করোনা নিয়ে। তারা বলেছেন অনেক মানুষ না খেয়ে মারা যাবে। কিন্তু সৃষ্টিকর্তার অশেষ দয়ায় আমাদের এ দেশে তেমন কিছু হয় নাই। আমি সকলের প্রতি আহবান জানাবো অতীতের ভুল থেকে শিক্ষা গ্রহণ করুন। এখন দলে দেখি কর্মী কম নেতা বেশি। প্রত্যেকেই সামনে যেতে চায়। কোন মাদক ক্রয়বিক্রয়ে জড়িত অথবা মাদকের সাথে সম্পৃক্ত এমন কেউ স্বেচ্ছাসেবকলীগ করতে পারবে না। কারণ আমরা প্রধানমন্ত্রীর কাছে শপথ নিয়েছি যে আমরা স্বেচ্ছাসেবকলীগ আপনি আমাদের যাকে যেখানে দায়িত্ব দিবেন আমরা সঠিকভাবে সে দায়িত্ব পালন করবো। নারায়ণগঞ্জ মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মোঃ জুয়েল হোসেনের সঞ্চালনায় আরও উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, কার্য নির্বাহী সদস্য নির্মল ঘোষ, উপ মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা উর্মি ঘোষ, ঢাকা মহানগর সার্বজনিন পূজা কমিটি ও কেন্দ্রীয় কমিটি ঢাকেশ্বরীর সহ-দপ্তর সম্পাদক সুজিত ঘোষ, , বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ নারায়ণগঞ্জ শাথার সাধারণ সম্পাদক শিখন সরকার শিপন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক নিমাই দে, গোয়লপাড়া পূজা উদযাপন কমিটির বাপ্পি ঘোষ, নয়ন গোষ, নয়ন সরকার, হিমু দত্ত রায়, লোকনাথ সাহা, সঞ্জয় ঘোষ, অন্তু ঘোষ, হৃদয় সরকার, অনিক সাহা, চন্দন ঘোষ, শুভ ঘোষ, শিমুল ঘোষ, অয়ন ঘোষ ও সুদেব ঘোষ প্রমূখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *