Logo

সিদ্ধিরগঞ্জে ইভটিজারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

সিদ্ধিরগঞ্জে ইভটিজারের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

সিদ্ধিরগঞ্জ সংবাদদাতা:
সিদ্ধিরগঞ্জে ইভটিজার, নারী নির্যাতনকারী, দেহব্যবসায়ী, চাঁদাবাজ, মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবিতে মহাসড়কে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী এলাকাবাসী। বুধবার (১৩ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় সিদ্ধিরগঞ্জের ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের শিমরাইল মোড় ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের সামনে মাদানীনগর ও নয়াআটি মুক্তিনগর এলাকার কয়েক শতাধিক নারী-পুরুষ ও যুব সমাজের অংশগ্রহণে এ বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয়। মাদানীনগর মাদ্রাসার ঢাল থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু করে মহাসড়কের শিমরাইল মোড়ে ইউটার্ণ দিয়ে ঘুরে আবারো মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে মাদানীনগর এলাকায় গিয়ে শেষ হয়। মানববন্ধনে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের (নাসিক) সিদ্ধিরগঞ্জের ৩নং ওয়ার্ডের মাদানীনগর এলাকার নাহিদা আক্তার নামে এক নারীকে উত্যক্ত করায় তার স্বামী তাহেরুলকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলাকারী একই ওয়ার্ডের নয়াআটি মুক্তিনগর এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ ও দেহব্যবসায়ী শাহ আলম, আনু, হিমেল, আলমগীর, বিল্লাল, রুবেল, সবুজ, লিয়ন ও জাকির সহ দোষীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবী জানানো হয়। ভুক্তভোগী নাহিদা জানান, বখাটে হিমেল প্রায় সময়ই আমাকে দেখলে অশ্লীল অঙ্গ-ভঙ্গীসহ কুরুচিপূর্ণ কথা-বার্তা বলতো। গত ৯ জানুয়ারি রাত ৯টায় আমি ওষুধ আনার জন্য মুক্তিনগর এলাকাস্থ ফার্মেসীতে গেলে হিমেল আমার সাথে অশালীন আচরণ করে এবং আমার হাত ধরে টান দেয় ও শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। এসময় চিৎকার করলে সে পালিয়ে যায়। বিষয়টি আমার স্বামীকে জানালে পরের দিন ১০ জানুয়ারি রোববার সন্ধ্যা আনুমানিক ৭টার দিকে নয়াআটি মুক্তিনগর এলাকাস্থ দ্বীন ইসলামের মুদি দোকানের সামনে হিমেলকে দেখতে পেয়ে আমার সাথে এরূপ খারাপ আচরণ করার কারণ জিজ্ঞাসা করলে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। একপর্যায়ে হিমেলের নেতৃত্বে উক্ত সন্ত্রাসীরা আমার স্বামীকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। আমরা নারীরা যদি মহল্লাতে নিরাপদে চলাফেরা করতে না পারি তাহলে যাব কোথায়। আর কত নারী এভাবে হয়রানীর শিকার হবে। দেশে কি আইন নাই। আমরা অবিলম্ভে হামলার ঘটনায় জড়িতদের দ্রæত গ্রেফতারের দাবী জানাচ্ছি। কারণ, ওই সন্ত্রাসীরা আবারো অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে এলাকায় মহড়া দিচ্ছে। আমরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।
এলাকাবাসী জানায়, মুক্তিনগর ও মাদানীনগর এলাকায় কিশোর গ্যাংয়ের উৎপাত বৃদ্ধি পেয়েছে। সামান্য ঘটনাতেই দলে দলে কোন্দল ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে থাকে। এলাকায় ইভটিজিং, মাদক ব্যবসা ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বেড়েই চলেছে। দ্রুত আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে কিশোর গ্যাংয়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য জোর দাবী জানান তারা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *