Logo

আনন্দ সেমাই কারখানায় মোবাইল কোর্টের হানা অনুমোদন ছাড়া বিএসটিআই’র নাম ব্যবহার করায় লাখ টাকা

আনন্দ সেমাই কারখানায় মোবাইল কোর্টের হানা অনুমোদন ছাড়া বিএসটিআই’র নাম ব্যবহার করায় লাখ টাকা

ফতুল্লাসংবাদদাতা:
বিএসটিআই এর অনুমোদন না থাকা সত্তে¡ও প্রতারণামূলকভাবে বিএসটিআই এর অনুমোদনের সিলযুক্ত সেমাইয়ের প্যাকেট করে প্রতারণা করছিলো নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার গোগনগরে আনন্দ সেমাই কারখানা। ভ্রাম্যমাণ আদালত (মোবাইল কোর্ট)উক্ত কারখানায় অভিযান চালিয়ে প্রতারণার দায়ে এক লাখ টাকা জরিমানা ও চার হাজার কেজি সেমাই জব্দ করেছেন। বুধবার (৫ মে) দুপুরে তিন ঘণ্টাব্যাপি ভ্রাম্যমাণ আদালতের এ অভিযানের নেতৃত্বে ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) হাসান বিন মুহাম্মদ আলী। তিনি জানান, দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত গোগনগরের পূর্ব মসিনাবন্দ সুকুম পট্টি মসজিদের গলিতে অবস্থিত ফারুক হোসেন রিপনের মালিকানাধীন আনন্দ ফুড প্রোডাক্টসে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। অভিযানকালে বিএসটিআই এর অনুমোদন না থাকা সত্তে¡ও প্রতারণামূলকভাবে বিএসটিআই এর অনুমোদনের সিলযুক্ত ৯ হাজার ৪১৭ প্যাকেট এবং প্যাকেট বিহীন খোলা ১৪৮টি খাঁচা লাচ্ছা সেমাই জব্দ করা হয়। যার আনুমানিক পরিমাণ ৪ হাজার কেজি। এ সময় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন, ২০০৯ এর ৪৪ ও ৪৫ ধারা এবং দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ১৮৭ ধারা ভঙ্গের অপরাধে ভ্রাম্যমাণ আদালত কর্তৃক এক লাখ টাকা অর্থদÐ প্রদান করা হয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হাসান বিন মুহাম্মদ আলী বলেন, প্রথমে কারখানা কর্তৃপক্ষ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের লোকজন দেখে ভেতর থেকে গেট বন্ধ করে দেয়। পরে আমি গেলে এবং চেয়ারম্যানসহ অন্যদের দিয়ে মালিককে ফোন করলে তারা দরজা খুলে। অভিযানকালে ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহযোগিতা করেন জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোঃ সেলিমুজ্জামান এবং পুলিশের একটি টিম।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *