Logo

নীলফামারীতে শিমুলগাছে উঠে তুলা পাড়াতে গিয়ে মাটিতে পড়ে শিশু আহত

নীলফামারীতে শিমুলগাছে উঠে তুলা পাড়াতে গিয়ে মাটিতে পড়ে শিশু আহত

মোঃ মোশফিকুর ইসলাম, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ নীলফামারীর জলঢাকায় শিমুলগাছে উঠে তুলা পাড়াতে গিয়ে বিদ্যুতের তারের সাথে জড়িয়ে মাটিতে পড়ে মুন্নাম হোসেন নামের ৮ বছরের এক শিশু গুরুতর আহত হয়েছে। শিশুটিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শিশুর পরিবারের দাবি, বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে ওই শিশুকে গাছে উঠতে বলেছিলেন শিউলী বেগম নামে এক শিক্ষিকা। ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার নেকবক্ত ডাঙ্গা পাড়া নামক এলাকায়। এ ঘটনায় শিশুটির চাচা মাসুদ বাদী হয়ে জলঢাকা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগে জানা যায়, নেকবক্ত সিদ্ধেশ্বরী জেলে ও কামারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা শিউলী বেগম বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে মুন্নাম হোসেনকে শিমুলগাছের তুলা পাড়াতে গাছে উঠে দেয়। এসময় গাছের ডালের থাকা বিদ্যুতের তারের সাথে জড়িয়ে মাটিতে লুটে পড়ে শিশুটি গুরুতর আহত হয়। পরে স্থানীয় লোকজন এসে মুন্নামকে জলঢাকা হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে রংপুর হাসপাতালে প্রেরন করে। রোববার দুপুরে ঘটনা স্থলে গিয়ে জানা যায়, মোশারফের ছেলে মুন্নাম হোসেন শিমুলগাছে তুলা পাড়াতে গিয়ে মাটিতে পড়ে আহত হয়। এসময় প্রত্যক্ষদর্শী আসাদুল ইসলাম বলেন, শিউলী ম্যাডাম প্রথমে অন্য ৪/৫ জনকে গাছে উঠতে বলেছিল কিন্তু কেউ রাজি হয়নি। এরপর আমার চাচাতো ভাই মুন্নামকে বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে গাছে উঠে দেয়। অপরদিকে,পার্শ্ববর্তী সাজেদা বেগম ও নার্গিস বেগম জানায়,ঘটনার সময় ম্যাডাম বাড়িতে কাজ করছিলো। শোরগোল শুনে একসাথে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি এই অবস্থা। এ বিষয়ে অভিযুক্ত শিক্ষিকা শিউলী বেগম জানান,আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সব মিথ্যে ও ভিত্তিহীন। আমি তখন বাড়ির কাজে ব্যস্ত ছিলাম। আসলে স্কুল পরিচালনা কমিটি এবং পূর্বের একটি বিয়ের ঘটনার জের ধরে ওরা আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *